laxmi puja in bakura
চলছে পুজো, সারেঙ্গার মণ্ডপে/ নিজস্ব চিত্র
ইন্দ্রাণী সেন।

বাঁকুড়া: দুর্গাপুজোর পর এ বার লক্ষ্মীপুজোতেও থিমের প্রবেশ বাঁকুড়ার জঙ্গলমহল এলাকায়। সারেঙ্গার বিক্রমপুর-হর‍্যাকী গ্রামে থিমের মণ্ডপে পূজিত হলেন লক্ষ্মী।

মণ্ডপের অভিনবত্বে চমক দিয়েছেন উদ্যোক্তারা। এই গ্রামের স্কুল পড়ুয়ারাই তৈরি করে ফেলেছে এই মণ্ডপ। এ বারের থিম ‘সবুজ বাঁচাও’।  স্বল্প বাজেট ও সহজলভ্য বাঁশ, খড়, পুরনো কাপড় আর কোচুরিপানা দিয়ে তৈরি করা হয়েছে পুজো মণ্ডপ। গাছপালা ভর্তি জঙ্গলমহলের আদলে পাহাড়ের আকার।

বাঁকুড়ার জঙ্গলমহল এলাকার প্রধান সমস্যা হল হাতি। হাতির আক্রমণে নিত্যদিন সমস্যার সম্মুখীন হন স্থানীয় বাসিন্দারা। খাবারের সন্ধানে ‘দলমার দামাল’দের জঙ্গল মহলের বিভিন্ন গ্রামে হঠাৎ হাজির হয়ে যাওয়া নতুন কিছু নয়। হাতি নিয়েই এক প্রকার আতঙ্কেই থাকেন এখানকার মানুষ। তাই হাতি নিয়ে অযথা আতঙ্কিত না হওয়ার বার্তা দিতে লক্ষী প্রতিমার দু’পাশে রয়েছে দু’টি সাদা হাতি। সব মিলিয়ে  প্রথম বছরের লক্ষ্মীপুজো দারুণ সাড়া ফেলেছে জঙ্গল মহলের এই গ্রামে।

আরও পড়ুন উত্তুরে হাওয়ার ছোঁয়ায় দক্ষিণবঙ্গে নামল পারদ, পুরুলিয়ায় রেকর্ড পতন

পুজো কমিটির অন্যতম উদ্যোক্তা রাজকুমার সন্নিগ্রহী বলেন, “স্থানীয়দের  বন ও বন্যপ্রাণ রক্ষার আবেদন ও একই সঙ্গে সচেতন করতেই  এই থিম ভাবনা।” এই থিমের সমস্ত কৃতিত্ব তিনি গ্রামের পড়ুয়াদের দিয়েছেন। নতুন ভাবনার রূপায়ণ, অভিনব মণ্ডপ সজ্জা ও প্রতিমার কারণে বহু মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন।

এ দিকে সারেঙ্গার খয়েরপাহাড়ী গ্রামে লক্ষ্মীপুজো উপলক্ষে ফি বছরের মতো এ বছরও তিন দিনের মেলা শুরু হয়েছে। মোরগ লড়াই, আদিবাসী নৃত্যও বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। রাজ্যের সীমানা ছাড়িয়ে বিহার, ঝাড়খণ্ড এলাকা থেকেও অসংখ্য মানুষ ছুটে আসেন বলে উদ্যোক্তারা জানিয়েছেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here