stampede at santragachhi station
সেই ফুটব্রিজ।

কলকাতা: সাঁতরাগাছি স্টেশনে পদপিষ্টের ঘটনায় তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানানো হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এই ঘটনায় মৃত্যু হয় দু’জনের।

সাঁতরাগাছি স্টেশনের ওভারব্রিজে হুড়োহুড়ির ফলে পদপিষ্টের ঘটনা ঘটে। দু’জনের মৃত্যুর পাশাপাশি আহত হন ১৪ জন। আহতরা এই মুহূর্তে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।  হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, আহতদের মধ্যে দশ বছরের এক বালকও রয়েছে যার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার বাড়ি রাধাপ্রসাদ লেনে। অন্যদিকে, আমর্হাস্ট স্ট্রিটের বাসিন্দা আকসত সাউ, সাঁতরাগাছি সরকারি কোয়ার্টারের বাসিন্দা গৌরনিতাই সাহার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁরা হাওড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

মঙ্গলবারই দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে তাশার সর্দার নামে মুর্শিদাবাদের এক বাসিন্দা ও পূর্ব মেদিনীপুরের কমলাকান্ত সিংহ নামে বছর বিয়াল্লিশের এক ব্যক্তির।  নিহতদের পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা করে  ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাঁতরাগাছি স্টেশনে একই সঙ্গে ৮ টি ট্রেন ঢুকে পড়ে। কয়েক ফুট চওড়া ফুট ব্রিজের ওপর  প্রচুর যাত্রী একসঙ্গে উঠে পড়লে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। প্রবল ঠেলাঠেলিতে দুর্ঘটনাটি ঘটে।  এই ঘটনায় রেলের মধ্যে সমন্বয়ের অভাব রয়েছে বলেই অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রথমেই রাজ্যের তরফ থেকে প্রশাসনিক দিক থেকে তদন্ত হবে বলে জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তারপরে এই ঘটনার তদন্তের জন্য উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটির গঠন করার কথা জানিয়েছে রেলও। রেলের তিন সিনিয়র আধিকারিককে নিয়ে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here