ট্রেনের ধাক্কায় হাতির মৃত্যু কার্যত নিত্যদিনের সমস্যা!

ওয়েবডেস্ক: উত্তরবঙ্গে রেললাইনে ট্রেনের ধাক্কায় হাতির মৃত্যু ঠেকানোর জন্য তিন রকম প্রযুক্তির ব্যবহারে সম্মত হল রাজ্য, রেল এবং পরিবেশ দফতর। জলপাইগুড়ির চালসায় দু’দিন ব্যাপী কর্মশালায় এই সিদ্ধান্তে আসা হয়েছে।

রাজ্যে, রেল এবং পরিবেশ দফতরের প্রতিনিধি ছাড়াও এই কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞানী এবং প্রাণীবিশারদরাও। রাজ্যর চিফ ওয়াইল্ড লাইফ ওয়ার্ডেন রবিকান্ত সিন্‌হা বলেন, “সিসমিক (মাটির কম্পন), অ্যাকোস্টিক (শব্দ) এবং ইনফ্রারেড প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে হাতির মৃত্যু ঠেকানোর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” এই প্রযুক্তি কী ভাবে ব্যবহার করা যায়, সে ব্যাপারে বেঙ্গালুরুর ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অফ সায়ান্সকে দশ দিনের মধ্যে একটি রিপোর্ট তৈরি করতে বলা হয়েছে।

আরও পড়ুন কলকাতা-সহ তিন শহরের হাইকোর্টের নাম বদলাচ্ছে
কী ভাবে কাজ করবে এই প্রযুক্তিগুলি?

এই তিন প্রযুক্তির সাহায্যে লাইনের ধারে জঙ্গলে হাতির চালচলনের ব্যাপারে নির্দিষ্ট তথ্য পৌঁছে যাবে নিকটতম রেল স্টেশনে। স্টেশনের আধিকারিকরা সেই তথ্য অনুযায়ী ট্রেন চলাচল নিয়ন্ত্রণের কাজ শুরু করে দেবেন।

ইতিমধ্যেই উত্তরাখণ্ডের রাজাজি জাতীয় উদ্যানে এই প্রযুক্তির পরীক্ষামূলক ব্যবহার চলছে। পরীক্ষা সফল হলে উত্তরবঙ্গে তা নিয়ে আসা হবে।

উত্তরবঙ্গ এবং সংলগ্ন অসমে ট্রেনের ধাক্কায় হাতির মৃত্যু একটা নিয়মিত সমস্যা। সেই সমস্যার সমাধানে বিভিন্ন চিন্তাভাবনা হলেও এখনও সে ভাবে কিছুই কাজে আসেনি। এখন দেখার নতুন এই প্রযুক্তির ব্যবহারে হাতির মৃত্যু আটকানো যায় কি না।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here