pritikana santra
indrani
ইন্দ্রাণী সেন

বাঁকুড়া: পঞ্চায়েত নির্বাচনে জেলা পরিষদের প্রার্থী হিসেবে নিজের মনোনয়ন প্রত্যাহার করছেন  রাজ্যের পঞ্চায়েত, গ্রামোন্নয়ন ও জন স্বাস্থ্য কারিগরি দফতরের রাষ্ট্রমন্ত্রী শ্যামল সাঁতরার স্ত্রী প্রীতিকণা সাঁতরা। বাঁকুড়ার জয়পুরের ৩৬ নম্বর জেলা পরিষদ আসন থেকে প্রীতিকণা সাঁতরা গত ৪ এপ্রিল বিষ্ণুপুর মহকুমা শাসকের দফতরে  মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন।

প্রীতিকণাদেবী একশো শতাংশ নিশ্চিত ছিলেন নিজের জয়ের বিষয়ে। মনোনয়নপত্র জমা দিয়ে বেরিয়ে এসে সাংবাদিকদের কাছে নিজেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের একজন ‘ছোট সৈনিক’ বলে পরিচয় দিয়েছিলেন তিনি। তবে হঠাৎ পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন কেন? খবরে প্রকাশ, মন্ত্রীর স্ত্রী জেলা পরিষদের প্রার্থী হওয়ার পর থেকেই দলের মধ্যে না কি এবিষয়ে তীব্র অন্তর্কলহ শুরু হয়। তাই মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করলেন প্রীতিকণা সাঁতরা।

সমর্থিত সূত্রের খবর , জয়পুরের ৩৬ নম্বর জেলা পরিষদে  মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরার স্ত্রীর পাশাপাশি তাঁর  ভগিনীপতি তৃণমূল নেতা রামপ্রসাদ মল্ল মনোনয়নপত্র জমা দেন। আবার  সোমবারই এই একই আসনে জয়পুর পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি মাধব পোড়েল ওই আসনেই মনোনয়নপত্র জমা দেন। একই দলের মধ্যে থেকে একই জেলা পরিষদের আসনে ত্রিমুখী প্রতিদ্বন্দিতা  হওয়ায় রাজনৈতিকভাবে চাপে পড়ে যায় শাসক দল। বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, প্রীতিকণাদেবী নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন।

এই বিষয়ে টেলিফোনে মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরার কাছে জানতে চাইলে তিনি নিজেও এই খবরের সত্যতা স্বীকার করেন।  শ্যামলবাবু বলেন, “দলীয় নির্দেশ মেনেই প্রীতিকণাদেবী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিচ্ছেন। দল যা সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা আমরা মেনে নিয়েছি।”

একই সঙ্গে তিনি জানান ওই ৩৬ নম্বর কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী হিসেবে মাধব পোড়েল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন