ওয়েবডেস্ক: অস্বস্তিকর গরমের পর অবশেষে কিছুটা স্বস্তির আভাস। শুক্রবার সন্ধ্যায় ঝড়বৃষ্টিতে ভিজল কলকাতা। আগামী তিন দিন দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে বিক্ষিপ্ত ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা। আর্দ্রতা বজায় থাকলেও পারদ কমবে বেশ কয়েক ধাপ।

সোমবার থেকে বুধবার চূড়ান্ত গরম এবং আর্দ্রতায় নাকাল হয়েছে মানুষ। ঝড়বৃষ্টির দেখা গেলেও তা ছিল নিতান্ত সাময়িক। তবে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বদলাতে শুরু করে পরিস্থিতি। কলকাতায় ছিটেফোঁটা হলেও দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় দাপট দেখিয়েছে কালবৈশাখী। তার রেশ চলেছে শুক্রবারও।

এ দিন সকাল থেকে আর্দ্রতা ছড়ি ঘোরানো শুরু করলেও দুপুরের পর থেকে রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় শুরু হয় ঝড়বৃষ্টি। সন্ধ্যার দিকে কলকাতাতেও আছড়ে পড়ে কালবৈশাখী। গোটা শহরেই কমবেশি বৃষ্টি হয়েছে। ঝড়বৃষ্টির ফলে পারদ অনেকটাই কমেছে।

এই স্বস্তি ফেরার পেছনে রয়েছে ঝাড়খণ্ডের ছোটোনাগপুর মালভূমি অঞ্চল। সেখানে একটি ঘূর্ণাবর্তের সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা। সেই সঙ্গে বিহার থেকে মণিপুর এবং ঝাড়খণ্ড থেকে ওড়িশা পর্যন্ত দু’টো অক্ষরেখাও সক্রিয় হয়েছে। এর ফলেই আগামী কয়েক দিন বিক্ষিপ্ত ঝড়বৃষ্টি হবে। উত্তরবঙ্গেও ভালো ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান রবীন্দ্রবাবু।

এর ফলে আগামী কয়েক দিন কলকাতার পারদ ৩৪ ডিগ্রির আশেপাশে ঘোরাফেরা করবে বলে জানানো হয়েছে। তবে পশ্চিমাঞ্চলে কিঞ্চিৎ বেশিই থাকবে পারদ। সেখানে তাপমাত্রা ৩৮ থেকে ৪১ ডিগ্রির মধ্যে ঘোরাফেরা করতে পারে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here