murshidabad bus accident

মুর্শিদাবাদ: নদীতে বাস উলটে ভয়াবহ দুর্ঘটনা মুর্শিদাবাদে। এখনও পর্যন্ত উদ্ধার হয়েছে ৩৬টা মৃতদেহ। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এখনও উদ্ধারকাজ চালানো হচ্ছে।

সোমবার সকাল ছ’টায় করিমপুর থেকে মালদা যাওয়ার পথে দুর্ঘটনাটি ঘটে। ঘন কুয়াশা দরুণ পথ দেখতে পাননি চালক। সেতুর ওপর থেকে বাস উলটে যায় ভাগিরথী নদী থেকে তৈরি হওয়া গোবরা খালে পড়ে যায়। তবে উদ্ধার হওয়া যাত্রীদের দাবি, সেই সময় চালক মোবাইল ফোনে কথা বলতে ব্যস্ত ছিলেন। আহতদের মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। উদ্ধার কাজে নামানো হয়েছে চারটি ক্রেন, ডুবুরি ও দমকল বাহিনীকেও। উদ্ধারে লেগেছে এনডিআরএফের দল। ক্রেনের সাহায্যে বহু প্রচেষ্টার পর তোলা গিয়েছে বাসটি। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মৃতদের পরিবার পিছু পাঁচ লক্ষ টাকা করে এবং গুরুতর ভাবে আহতদের জন্য মাথাপিছু এক লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

mamata banerjee

ঘটনাস্থলে পৌঁছতে দেরি করে পুলিশ ও উদ্ধারকারী দল। প্রাথমিক ভাবে স্থানীয়রাই উদ্ধার কাজে এগিয়ে আসেন। তাঁদের ছোটো নৌকার সাহায্যে উদ্ধার কাজ চালাতে থাকেন। এর পর পুলিশ ও দমকলবাহিনী সেখানে এলে তাদের লক্ষ করে পাথর ছুঁড়তে থাকেন ক্ষিপ্ত জনতা।তাঁরা পুলিশের গাড়ি জ্বালিয়ে দেন। উত্তেজিত জনতাকে বাগে আনতে কাঁদানে গ্যাস ছোরে পুলিশ। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে সকালেই ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারি ও অতিরিক্ত মুখ্য সচিব (পরিবহন) আলপন বন্দ্যোপাধ্যায়।

পুলিশ জানিয়েছে, প্রাথমিক ভাবে তদন্তে জানা গিয়েছে ঘন কুয়াশার দরুণই এই দুর্ঘটনা। আবার প্রত্যক্ষদর্শীদের কেউ কেউ দাবি করছেন, রেষারেষি করতে গিয়েই দুর্ঘটনার কবলে পড়ে বাসটি। বাসে মোট ৬০জন যাত্রী ছিলেন বলে দাবি করেছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here