আরও একটি পুরসভা পুনরুদ্ধার করল তৃণমূল

0
Firhad-Hakim

ওয়েবডেস্ক: লোকসভা ভোটের পর থেকে পরিবর্তিত রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে উত্তর ২৪ পরগনার একাধিক পুরসভা তৃণমূলের হাতছাড়া হওয়ার অবস্থায় পৌঁছেছিল। তবে হালিশহর বা কাঁচরাপাড়ার মতোই শনিবার ফের তৃণমূলের দখলে ফিরে এল নৈহাটি পুরসভা। এ দিন পুরমন্ত্রী এবং কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম দাবি করেন, নৈহাটির ৩১ জন কাউন্সিলারের মধ্যে ২৯ জনই এখন তাঁদের সঙ্গে রয়েছেন।

গত পুরসভা ভোটে নৈহাটির ৩১টি ওয়ার্ডেই জিতেছিলেন তৃণমূল প্রার্থীরা। কিন্তু লোকসভা ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর দিল্লিতে গিয়ে তৃণমূলের ২৯ জন কাউন্সিলার গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়েছেন বলে দাবি করে বিজেপি। স্বাভাবিক ভাবেই তার পর থেকে নৈহাটি পুরসভা কার দখলে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছিল। তবে এ দিন পুরমন্ত্রী সাংবাদিক বৈঠক করে জানিয়ে দেন, যাঁদের ভয় দেখিয়ে বিজেপি দলবদল করিয়েছিল, তাঁরা পুনরায় তৃণমূলে ফিরে আসায় পুরসভা তাঁদের হাতেই রইল।

এর আগে তৃণমূলত্যাগী ১৮ জন কাউন্সিলার বর্তমান পুরবোর্ডের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে আসেন। তাঁরা অনাস্থা আনতে পুরআধিকারিকের কাছে চিঠিও দেন। কিন্তু এরই মাঝে নৈহাটি পুরসভায় প্রশাসক বসিয়ে দেয় রাজ্য। যে কারণে অনাস্থা প্রস্তাবও ঠান্ডাঘরে চলে যায়।

এ দিন অবশ্য পুরমন্ত্রী সাংবাদিকদের সামনে অভিযোগ করেন, “লোকসভা ভোটের পর তৃণমূল কাউন্সিলরদের ভুল বুঝিয়ে বিজেপিতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। কিন্তু তাঁরা ভুল বুঝতে পেরে আবার ফিরে এসেছেন। কোনো কোনো কাউন্সিলারকে মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে, তাঁর সন্তানের মাথায় বন্দুক ধরে বিজেপি ভয় দেখিয়ে দলবদল করেছিল। তবে এখন ২৩ জন কাউন্সিলরই আমাদের সঙ্গে রয়েছেন”।

জানা গিয়েছে, এ দিন পুরমন্ত্রীর উপস্থিতিতে বিজেপিতে যোগ দেওয়া ১৮ জন তৃণমূল কাউন্সিলরের মধ্যে ১০ জন কাউন্সিলর তৃণমূলে ফিরে এলেন। তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দেওয়া অবশিষ্ট আট জন কাউন্সিলরও ঘরে ফিরবেন বলে দাবি করেছে তৃণমূল নেতৃত্ব। সব মিলিয়ে এই মুহূর্তে নৈহাটি পুরসভায় তৃণমূলের ২৩ জন কাউন্সিলর রয়েছেন বলে দাবি করেছেন পুরমন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here