দ্রুত উপনির্বাচন চাই! শুক্রবার মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের কাছে প্রতিনিধি দল পাঠাচ্ছে তৃণমূল

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের কাছে প্রতিনিধি দল পাঠাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব রাজ্যে উপনির্বাচন প্রক্রিয়া দ্রুত করার জন্য তাঁকে অনুরোধ জানাবে ওই প্রতিনিধি দল।

ইতিমধ্যেই রাজ্যের পাঁচ আসনে উপনির্বাচন চেয়ে দিল্লিতে মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের কাছে দরবার করছে তৃণমূল সাংসদদের একটি প্রতিনিধি দল। বৃহস্পতিবার তৃণমূল নেতা এবং রাজ্যের মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, কিন্তু দিল্লি থেকে এ ব্যাপারে কোনো প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

Shyamsundar

তিনি এ দিন জানান, আগামীকাল (শুক্রবার) তৃণমূলের একটি প্রতিনিধি দল রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের সঙ্গে দেখা করে দ্রুত উপনির্বাচন প্রক্রিয়ার আর্জি জানাবে। পাঁচ বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের পাশাপাশি বাকি থাকা দুই কেন্দ্রের ভোটগ্রহণের আবেদন জানানো হবে।

লাগাতার বিরোধিতা বিজেপির

এর আগে করোনা পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করে ভোটে আপত্তি জানিয়েছিল বিজেপি। এখন রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতির কারণে ভোটে অনীহা দেখাচ্ছে গেরুয়া শিবির। এ ব্যাপারে পার্থ বলেন, সব কিছুতেই বিরোধিতা করা বিজেপির একটা ‘অভ্যেস’।

এ ভাবেই উপনির্বাচন এবং বাকি থাকা দুই কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ নিয়ে চাপানউতোর চলছে তৃণমূল-বিজেপির মধ্যে। তবে দিনক্ষণ স্থির না হলেও গত মঙ্গলবার থেকে ইভিএম, ভিভিপ্যাটের ‘ফার্স্ট লেভেল চেকিং’ শুরু করে দিয়েছে কমিশন। যা চলবে আগামী ৬ আগস্ট পর্যন্ত।

ইভিএম, ভিভিপ্যাটের ‘ফার্স্ট লেভেল চেকিং’ অর্থাৎ প্রথম পর্যায়ে পরীক্ষার শুরু হওয়ার সঙ্গে ভোটগ্রহণের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেল বলে ধরে নেওয়া যেতেই পারে। কারণ, এটাই ভোট প্রস্তুতির সর্বপ্রথম ধাপ। এ ধরনের পরীক্ষার মাধ্যমে সব রাজনৈতিক দলের উপস্থিতিতে ত্রুটিপূর্ণ ইভিএম এবং ভিভিপ্যাট চিহ্নিত করে তা বদল করা হয়।

কোথায় কেন ভোট হবে?

রাজ্যে বর্তমানে পাঁচটি কেন্দ্রে উপনির্বাচন এবং দু’টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বাকি রয়েছে। ভোট হবে ভবানীপুর, খড়দহ, শান্তিপুর, গোসাবা, দিনহাটা, সামশেরগঞ্জ এহং জঙ্গিপুরে। এর মধ্যে সামশেরগঞ্জ এবং জঙ্গিপুরে প্রার্থীদের মৃত্যুতে ভোটগ্রহণ স্থগিত হয়ে যায়। খড়দহ, গোসাবায় ভোটের পরে বিধায়কদের মৃত্যু হয়। শান্তিপুর, দিনহাটা এবং ভবানীপুরে নির্বাচিত বিধায়করা পদত্যাগ করেন।

উল্লেখ্য, গত ১৫ জুলাই দিল্লিতে কমিশনের দফতরে যান তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দোপাধ্যায়, সৌগত রায়, কল্যাণ বন্দোপাধ্যায়, কাকলি ঘোষ দস্তিদার, সুখেন্দুশেখর রায় ও ডেরেক ও’ব্রায়েন। রাজ্যের সাত বিধানসভা আসনে দ্রুত উপনির্বাচন চেয়ে কমিশনের দফতরে হাজির হন তৃণমূলের ছয় সাংসদ।

খবর অনলাইন-এর অন্যান্য প্রতিবেদন পড়ুন এখানে: khaboronline.com

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন