Connect with us

রাজ্য

বিজেপি নেতার মেয়ের ‘অপহরণ’-কাণ্ডে জড়িত তৃণমূল বিধায়ক, দাবি অনুব্রতর

ওয়েবডেস্ক: বীরভূমের লাভপুরের বিজেপি নেতা সুপ্রভাত বটব্যালের বছর বাইশের মেয়েকে অপরহণের অভিযোগ ওঠে। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকেই ওই যুবতী নিখোঁজ ছিলেন বলে দাবি। তবে ডালখোলা স্টেশন থেকে পুলিশ যুবতীকে উদ্ধার করার পর প্রকাশ্যে আসছে একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য।

এ দিন তৃণমূলের বিজেপি জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “এই ঘটনা যে পুরোটাই সাজানো নাটক তা স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে। বিজেপির কিছু নেতা নিজেরাই অপহরণের নাটক করে তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলছিল”।

একই সঙ্গে তিনি বলেন, “এই ঘটনায় সুপ্রভাত বটব্যালের সঙ্গে তৃণমূলের বিধায়ক মনিরুল ইসলামও জড়িত। কারণ মহিলা জানিয়েছেন, আমাকে বাবা এবং মনিকাকু যেতে বলেছিল। এই মনিকাকু আর অন্য কেই নন, আমাদের দলের বিধায়ক। দলের বিধায়ক বলে তো সত্য চাপা থাকবে না। তৃণমূলের বদনাম করার জন্যই এই কাণ্ড ঘটানো হয়েছে”।

পুলিশ জানিয়েছে, ডালখোলা স্টেশন থেকে রাজু সর্দার ও দীপঙ্কর মণ্ডল নামে দার্জিলিং জেলার নকশালবাড়ি থানা এলাকার  ২ যুবককে গ্রেফতার করা হয়। সঙ্গে সুপ্রভাতবাবুকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে আগে থেকেই একটি অভিযোগে তদন্ত চলছে। সম্ভবত সেটাকে ধামাচাপা দিতেই এই পূর্বপরিকল্পিত অপহরণ।

এ ব্যাপারে অবশ্য মনিরুলসাহেবের কোনো বক্তব্য এখনও জানা যায়নি। তবে গত শনিবার ৪৮ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও ফেরত লাভপুরের ওই বিজেপি নেতার মেয়ে ফেরত না আসায় জনরোষের মুখে পড়ে নিজের গ্রামের খুব কাছ থেকে পালাতে হয়েছিল তাঁকে। ভাঙচুর করা হয়েছিল তাঁর গাড়িটিও।

[ আরও পড়ুন: বিজেপি নেতার মেয়ের অন্তর্ধান রহস্যের কিনারা! উদ্ধার ডালখোলা স্টেশন থেকে ]

মনিরুলসাহেব পরে জানিয়েছিলেন, “মেয়েটিকে অপহরণ করা হয়েছে, এটা ঠিকই। আমার এলাকায় হওয়ায় ছুটে এসেছিলাম। বিজেপি আমার গাড়ি লক্ষ করে আক্রমণ করে। তবে আমাকে ছুটে পালাতে হয়নি। এ সবই ভিত্তিহীন কথা”।

অর্থাৎ তৃণমূল বিধায়ক নিজেই স্বীকার করেছিলেন যুবতীকে ‘অপরহণ’ই করা হয়েছিল।

রাজ্য

করোনা রুখতে পশ্চিমবঙ্গের ‘সেফ হোম’-এর ভূয়সী প্রশংসা কেন্দ্রের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: করোনা (Coronavirus) ছড়িয়ে পড়া রুখতে আইসিএমআরের (ICMR) নির্দেশমতো রাজ্য যে বিভিন্ন ‘সেফ হোম’ তৈরি করেছে, তার ভূয়সী প্রশংসা করল কেন্দ্র। কিছু দিন আগেই করোনা মোকাবিলা নিয়ে বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যসচিবদের নিয়ে বৈঠক করেন ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌবা (Rajib Gouba)।

সেই বৈঠকেই পশ্চিমবঙ্গের এই পদক্ষেপের প্রশংসা করেছেন বলে নবান্ন সূত্রের খবর। সেই সঙ্গে অন্যান্য রাজ্যকেও পশ্চিমবঙ্গের এই মডেল অনুসরণ করার পরামর্শে দিয়েছেন ক্যাবিনেট সচিব।

সেফ হোম কী?

নবান্ন সূত্রে খবর, উপসর্গহীন করোনা রোগীদের কিংবা যাঁদের উপসর্গ একেবারে প্রাথমিক অবস্থায় রয়েছে, তাঁদের বাড়িতে রেখে চিকিৎসা করার পরামর্শ দিয়েছে আইসিএমআর। কিন্তু জনবহুল জায়গাগুলিতে এই ধরনের রোগীকে কোনো ভাবেই বাড়িতে রেখে চিকিৎসা করা সম্ভব নয়।

বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনে পশ্চিমবঙ্গ সরকার কোয়ারান্টাইন কেন্দ্রের মতোই ‘সেফ হোম’ (Safe Home) তৈরি করেছে। যেখানে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা নিয়মিত নজরদারি চালাচ্ছেন রোগীর উপর। সুস্থ হলে রোগীরা নিজেদের বাড়িতে ফিরে যাচ্ছেন।

কোনো রোগীর জটিলতা দেখা দিলে তাঁকে সেফ হোম থেকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সেফ হোমে রোগীর থাকা, খাওয়া ও চিকিৎসার খরচ সরকার বহন করছে। ইতিমধ্যে রাজ্যে ১০৬টি সেফ হোম তৈরি হয়েছে। যেখানে ৬ হাজার ৯০৮টি শয্যা রয়েছে।

অভিবাসী শ্রমিকরা (Migrant Labourers) রাজ্যে ফিরতে শুরু করার পর উপসর্গহীন রোগীর সংখ্যা অনেকটাই বেড়ে যায় রাজ্যে। সে কারণে সেফ হোমের প্রয়োজনীয়তা আগের থেকে অনেক বেড়ে গিয়েছে।

সরকারি উদ্যোগে কলকাতায় এ রকম দু’টি সেফ হোম চলছে। একটি ট্যাংরা এলাকায়, সেখানে দেড়শো শয্যা। দ্বিতীয়টি নিউ টাউনে, সেখানে শয্যা সংখ্যা একশো। এ ছাড়া শহরের কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতালও এই মডেল অনুসরণ শুরু করেছে।

সে ক্ষেত্রে হাসপাতাল সংলগ্ন হোটেলে এই সেফ হোম তৈরি করে ‘আইসোলেশন সেন্টার’ নাম দেওয়া হয়েছে।

সূত্রের খবর, পশ্চিমবঙ্গের এই মডেল অনুসরণ করে রাজস্থানও উপসর্গহীন রোগীদের সঙ্গে সেফ হোম তৈরি করেছে। কেন্দ্রের প্রশংসা কুড়িয়েছে সেটাও।

Continue Reading

রাজ্য

নমুনা পজিটিভ হওয়ার হারে পশ্চিমবঙ্গের অবস্থান বাকি দেশের তুলনায় কোন জায়গায়?

বেশ কিছু রাজ্য বা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল এমনও রয়েছে, যেখানে আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই কম হলেও নমুনা পজিটিভ হওয়ার হার পশ্চিমবঙ্গের থেকে বেশি।

coronavirus

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভারতে এক একটি রাজ্য আর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে করোনা পরিস্থিতি এক এক রকম। ঠিক তেমন ভাবেই নমুনা পরীক্ষার ক্ষেত্রেও কেউ কেউ খুব এগিয়ে আর কেউ কেউ বেশ পিছিয়ে।

বর্তমানে ভারতে যে যে রাজ্য আর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দশ হাজারের গণ্ডি পেরিয়ে গিয়েছে সেখানে নমুনা পজিটিভ হওয়ার হার কেমন রয়েছে, সেটা তুলে ধরা হল।

এই হিসেবে দেখা যাবে, বর্তমানে তেলঙ্গানার অবস্থা দেশের মধ্যে সব থেকে খারাপ। আবার পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতি চিন্তা তৈরি করলেও, অন্য রাজ্যের তুলনায় অতটাও খারাপ নয়। বিস্তারিত জেনে নিন।

তেলঙ্গানা

আক্রান্তের সংখ্যা- ২৩,৯০২

নমুনা পরীক্ষা- ১,১৫,৮৩৫

নমুনা পজিটিভের হার- ২০.৬৩ শতাংশ

মহারাষ্ট্র

আক্রান্তের সংখ্যা- ২,০৬,৬১৯

নমুনা পরীক্ষা- ১১,১২,৪৪২

নমুনা পজিটিভের হার- ১৮.৫৭ শতাংশ

দিল্লি

আক্রান্তের সংখ্যা – ৯৯,৪৪৪

নমুনা পরীক্ষা -৬,৪৩,৫০৪

নমুনা পজিটিভের হার- ১৫.৪৫ শতাংশ

গুজরাত

আক্রান্তের সংখ্যা- ৩৬,০৩৭

নমুনা পরীক্ষা- ৪,১১,৭০৪

নমুনা পজিটিভের হার- ৮.৭৫ শতাংশ

তামিলনাড়ু

আক্রান্তের সংখ্যা- ১,১১,১৫১

নমুনা পরীক্ষা- ১৩,৪১,৭১৫

নমুনা পজিটিভের হার- ৮.২৮ শতাংশ।

হরিয়ানা

আক্রান্ত- ১৭০০৫

নমুনা পরীক্ষা- ৩,০৭,১৫৯

নমুনা পজিটিভের হার- ৫.৫৩ শতাংশ।

বিহার

আক্রান্ত- ১১,৬৯৬

নমুনা পরীক্ষা- ২,৫৮, ৮৯৬

নমুনা পজিটিভের হার- ৪.৫১ শতাংশ

পশ্চিমবঙ্গ

আক্রান্তের সংখ্যা- ২২,১২৬

নমুনা পরীক্ষা- ৫,৪১,০৮৮

নমুনা পজিটিভের হার- ৪.০৯ শতাংশ

কর্নাটক

আক্রান্তের সংখ্যা- ২৩,৪৭৪

নমুনা পরীক্ষা- ৭,০৬, ৪২৫

নমুনা পজিটিভের হার- ৩.৩২ শতাংশ

অসম

আক্রান্তের সংখ্যা – ১১,৩৮৮

নমুনা পরীক্ষা – ৪,৫৫,২২৩

নমুনা পজিটিভের হার – ২.৫০ শতাংশ

রাজস্থান

আক্রান্ত – ২০, ১৬৪

নমুনা পরীক্ষা- ৯,০৯,১৩২

নমুনা পজিটিভের হার- ২.২১ শতাংশ

অন্ধ্রপ্রদেশ

আক্রান্ত – ১৮,৬৯৭

নমুনা পরীক্ষা – ১০,১৭,১২৩

নমুনা পজিটিভের হার – ১.৮৩ শতাংশ।

উত্তরপ্রদেশ (আক্রান্তের সংখ্যা ২৭,৭০৭) আর মধ্যপ্রদেশে (আক্রান্তের সংখ্যা ১৪,৯৩০) আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেশি হলেও নমুনা পরীক্ষা সংক্রান্ত কোনো তথ্য নেই। তবে কম পরীক্ষা নিয়ে কিছু দিন আগেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ‘বকুনি’ খেয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ।

উল্লিখিত তালিকায় শুধুমাত্র যে সব রাজ্য আর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজারের বেশি, সেগুলি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বেশ কিছু রাজ্য বা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল এমনও রয়েছে, যেখানে আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই কম হলেও নমুনা পজিটিভ হওয়ার হার পশ্চিমবঙ্গের থেকে বেশি।

Continue Reading

রাজ্য

রাজ্যে এক দিনে আক্রান্তের সংখ্যায় নতুন রেকর্ড! তবে সক্রিয় রোগীর চেয়ে অনেক এগিয়ে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা

গত চব্বিশ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯৫ জন

কলকাতা: রাজ্য শেষ চব্বিশ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে (Coronavirus) আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ন’শো জন। রবিবার স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনে জানানো হয়, গত চব্বিশ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯৫ জন। শনিবার এই সংখ্যাটিই ছিল ৭৪৩।

এ দিন শেষ চব্বিশ ঘণ্টায় আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা এখনও পর্যন্ত এক দিনে সর্বাধিক বলে জানা গিয়েছে ওই বুলেটিন থেকে। স্বাস্থ্য দফতর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫৪৫ জন কোভিড-১৯ (Covid-19) রোগী। এখনও পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা ১৪,৭১১ জন। সুস্থতার হার দাঁড়িয়েছে ৬৬.৪৮ শতাংশ। গত শনিবার রাজ্যে সুস্থতার হার ছিল ৬৬.৭২ শতাংশ। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২২,১২৬ জন।

আক্রান্তের মধ্যে অর্ধেকের বেশি অংশ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যাওয়ায় রবিবার পর্যন্ত সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৬,৬৫৮ জন। ফলে সুস্থ হয়ে ওঠা এবং বর্তমানে চিকিৎসাধীন আক্রান্তের সংখ্যার ফারাক পৌঁছেছে আট হাজারের বেশি।

কলকাতায় সংক্রমণ

রবিবার পর্যন্ত কলকাতায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন সব মিলিয়ে ৭,১০৮ জন। সারা রাজ্যে যেখানে মোট মৃতের সংখ্যা ৭৫৭, সেখানে কলকাতাতেই মৃত্যু হয়েছে ৪১৮ জনের। শেষ চব্বিশ ঘণ্টায় যে ২১ জন মারা গিয়েছেন, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন কলকাতার আট জন। বাকিদের মধ্যে উত্তর ২৪ পরগনার আট জন, হাওড়ার দু’জন এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা, মালদহ ও জলপাইগুড়ির এক জন করে।

নতুন করে কোন জেলায় কত আক্রান্ত

কলকাতা: ২৪৪

আলিপুরদুয়ার: ১

দার্জিলিং: ২৬

জলপাইগুড়ি: ৮

উত্তর দিনাজপুর: ১৯

দক্ষিণ দিনাজপুর: ৮

মালদহ: ৩৭

মুর্শিদাবাদ: ৬

নদিয়া: ৭

পুরুলিয়া: ৩

বাঁকুড়া: ৬

ঝাড়গ্রাম: ১

পশ্চিম মেদিনীপুর: ১১

পূর্ব মেদিনীপুর: ৯

পূর্ব বর্ধমান: ৩

পশ্চিম বর্ধমান: ১

হাওড়া: ১১১

হুগলি: ৬২

উত্তর ২৪ পরগনা: ২১৪

দক্ষিণ ২৪ পরগনা: ১১৮

আরও আসছে…

Continue Reading
Advertisement
রাজ্য13 mins ago

করোনা রুখতে পশ্চিমবঙ্গের ‘সেফ হোম’-এর ভূয়সী প্রশংসা কেন্দ্রের

coronavirus
রাজ্য1 hour ago

নমুনা পজিটিভ হওয়ার হারে পশ্চিমবঙ্গের অবস্থান বাকি দেশের তুলনায় কোন জায়গায়?

দেশ2 hours ago

ছয় রাজ্যে ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে নতুন করে সংক্রমিত ১৭,৬৪৭, বাকি দেশে ৬,৬০১

দেশ2 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৪২৪৮, সুস্থ ১৫৩৫০

কলকাতা2 hours ago

কলকাতায় এখন ১৮টি কনটেনমেন্ট জোন, ১৮৭২টি আইসোলেশন ইউনিট, ফারাকটা কোথায়?

দেশ3 hours ago

আগামী এক বছর কেরলে মানতে হবে করোনা সংক্রান্ত স্বাস্থ্যবিধি, অন্যথায় বিপুল অঙ্কের জরিমানা

দেশ3 hours ago

‘করোনা ছড়াতে পারেন পর্যটকরা,’ সোমবার খুলছে না তাজমহল

দেশ10 hours ago

কোভিড থেকে সুস্থ হলেন এক শতায়ু দিল্লিবাসী, যিনি স্প্যানিশ ফ্লু-এর সাক্ষী

দেশ2 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৪২৪৮, সুস্থ ১৫৩৫০

কলকাতা2 days ago

কলকাতায় অতিসংক্রমিত ১৬টি অঞ্চলকে পুরোপুরি সিল করে দেওয়ার প্রস্তুতি

wfh
ঘরদোর3 days ago

ওয়ার্ক ফ্রম হোম করছেন? কাজের গুণমান বাড়াতে এই পরামর্শ মেনে চলুন

fat
শরীরস্বাস্থ্য3 days ago

কোমরের পেছনের মেদ কমান এই ব্যায়ামগুলির সাহায্যে

thunderstorm
রাজ্য3 days ago

কলকাতা-সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গে সন্ধ্যার মধ্যে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা

রাজ্য2 days ago

করোনা-আক্রান্তের সংখ্যায় কলকাতাকে পেছনে ফেলে দিল হায়দরাবাদ, বেঙ্গালুরু

বিদেশ3 days ago

প্রধানমন্ত্রীর লাদাখ সফরের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই চিনের প্রতিক্রিয়া

দেশ2 days ago

পাঁচ রাজ্যে নতুন করে করোনা-আক্রান্ত ১৬,৭৯৯ বাকি দেশে ৫,৯৭২

কেনাকাটা

কেনাকাটা20 hours ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

DIY DIY
কেনাকাটা6 days ago

সময় কাটছে না? ঘরে বসে এই সমস্ত সামগ্রী দিয়ে করুন ডিআইওয়াই আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক :  এক ঘেয়ে সময় কাটছে না? ঘরে বসে করতে পারেন ডিআইওয়াই অর্থাৎ ডু ইট ইওরসেলফ। বাড়িতে পড়ে...

smartphone smartphone
কেনাকাটা1 week ago

লকডাউনের মধ্যে ফোন খারাপ? রইল ৫ হাজারের মধ্যে স্মার্টফোনের হদিশ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে ঘরে বসে যতটা কাজ সারা যায় ততটাই ভালো। তাই মোবাইল ফোন খারাপ...

কেনাকাটা1 week ago

১০টি ওয়াশেবল মাস্ক দেখে নিন

খবর অনলাইন ডেস্ক : বাইরে বেরোচ্ছেন। মাস্ক অবশ্যই ব্যবহার করুন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনাভাইরাসের হাত থেকে বাঁচতে তিন স্তর বিশিষ্ট মাস্ক...

নজরে