অবশেষে দেখা দিলীপ-দেবশ্রীর! বিচ্ছেদ প্রার্থনা শোভন-বৈশাখীর

0
প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি

ওয়েবেডেস্ক: অবশেষে সাক্ষাৎ হল বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়ের। অন্যদিকে গেরুয়া শিবিরে যোগ দেওয়ার মাত্র সপ্তাহ দুয়েক বাদেই বিজেপি সঙ্গে বিচ্ছেদ প্রার্থনা করলেন শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের তরফে অবশ্য তাঁদের সেই প্রার্থনায় ছাড়পত্রও দেওয়া হল।

গত বুধবার রাতে দিলীপের বাড়ির সামনে দেখা যায় দেবশ্রীকে। কিন্তু বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর দিলীপ বাড়ি না ফেরায় চলে যান দেবশ্রী। জানা গিয়েছে, পর দিন দিলীপ-দেবশ্রীর গোপন বৈঠক হয় সল্টলেকে।

পরিস্থিতি যে দিকে এগোচ্ছে, তাতে তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়ের বিজেপিতে যোগদানে শোভন-বৈশাখীর আপত্তি ধোপে টিকবে না বলেই সাফ জানিয়ে দিয়েছেন দিলীপ। তিনি আগেই জানিয়েছেন,”কারও আপত্তি নেই। তবে যোগ দেওয়ার জন্য যে পরিবেশ দরকার হয়, সেটা এখনও হয়নি। দরজা সবসময় খোলা রয়েছে। উনি (দেবশ্রী) কী চাইছেন, আর আমরা কী চাইছি, সেটা ঠিক হয়ে গেলে দলে নিয়ে নেব”।

সাক্ষাতের পর তিনি জানান, “দেবশ্রী রায় এসেছিলেন আমার সঙ্গে দেখা করতে। কথা হয়েছে। দলে আসতে চান। এ ছাড়াও শোভন-বৈশাখী সম্পর্কেও কিছু অভিযোগ করেছেন। ওঁকে দলে নেওয়া হবে কিনা, সেটা আলোচনা করে স্থির করা হবে”। পাশাপাশি তিনি ফের এক বার স্মরণ করিয়ে দেন, “কাকে নেওয়া হবে, সেটা আমরা ঠিক করব”।

ঠিক এই জায়গা থেকেই হয়তো সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া বৈশাখী একটি সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন, “যাঁদের দল, তাঁরাই স্থির করবেন, কাকে নেবেন, কাকে নেবেন না। আমার কিছু বলার থাকতে পারে না”। একই সঙ্গে তিনি স্পষ্ট করেই জানিয়েছেন, “আমাদের নিষ্কৃতী দেওয়া হোক”।

আরও পড়ুন: যোগ দেওয়ার দু’সপ্তাহের মধ্যেই বিজেপি ছাড়ছেন শোভন-বৈশাখী!

দেবশ্রীর বিনিময়ে যে শোভন-বৈশাখীকে বিজেপি ছাড়তে পারে সে কথাও জানিয়েছেন দলের পশ্চিমবঙ্গ পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তিনি বলেন,”ওঁদের কিছু ভুল ধারণা হয়েছে বিজেপি সম্পর্কে। সে-সব নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ওঁরা নিজের ইচ্ছায় এসেছিলেন। ভালো না-লাগলে নিজের ইচ্ছেতেই চলে যাবেন। আমরা কিছু করব না”।

আরও পড়ুন: দিল্লিতে বিজেপির পার্টি অফিসে দেবশ্রী রায়কে দেখেই বেঁকে বসলেন শোভন!

উল্লেখ্য়, শোভন-বৈশাখীর মনোভাব আঁচ করে তাঁদের অভিমান ভাঙাতে গত কৈলাস নিজের বাড়িতে ডেকে পাঠান শোভন ও বৈশাখীকে। তার আগের রাতেই শোভনের বাড়ি গিয়ে বৈঠক করেছিলেন দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের তরফ থেকে পশ্চিমবঙ্গের দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন এবং জয়প্রকাশ মজুমদার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here