ajit maity
Samir mahat
সমীর মাহাত

“পঞ্চায়েতের ফল খারাপের কারণে নয়, প্রশাসনিক ভাবেই মন্ত্রীদের রদবদল ঘটানো হয়েছে”। ঝাড়গ্রামে যুব তৃণমূলের পদযাত্রায় এসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এমনটাই জানালেন তৃণমূলের ঝাড়গ্রাম জেলা সভাপতি অজিত মাইতি।

কেন্দ্রীয় সরকারের পেট্রো পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে শুক্রবার ঝাড়গ্রামে পদযাত্রার আয়োজন করে যুব তৃণমূল। এ দিন পদযাত্রায় যোগ দেন বিধায়ক সুকুমার হাঁসদা, বিদায়ী মন্ত্রী চূড়ামণি মাহাত, স্থানীয় নেতৃত্ব শিবেন্দ্রবিজয় মল্লদেব, প্রশান্ত রায়-সহ অন্যান্য নেতৃত্ব। প্রসঙ্গত, জঙ্গল মহলের পুরুলিয়া ও ঝাড়গ্রামে পঞ্চায়েতের ফল খারাপের জন্য শাসক শিবিরের নেতা-মন্ত্রীদের দিকেই দলীয় ভাবে আঙুল ওঠে। কোপে পড়েন গোপীবল্লভপুরের বিধায়ক তথা মন্ত্রী চূড়ামণি মাহাত। নিজের জন্মভিটে অঞ্চলে তৃণমূল শূন্য হয়। সংবাদ মাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়ায় চূড়ামণিবাবুকে কেন্দ্র করে নিয়মিত সংবাদ ও মতামত পরিবেশন অব্যাহত থাকে।

দলীয় ভাবে পরাজয়ের অন্তর্তদন্ত শুরু হয়। দলীয় বৈঠকে ঝাড়গ্রামে আসেন দলের মহাসচিব মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। অবশেষে রাজ্য মন্ত্রিসভায় রদবদল ঘটান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। বাদ পড়েন মন্ত্রী চূড়ামণি মাহাত। এ বিষয়ে এ দিন অজিতবাবু আরও বলেন, “বিষয়টা তা নয়, বিষয়টা দেখুন সম্পূর্ণ ভাবে প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত। মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী সিদ্ধান্ত নিয়ে তা করেছেন। আমরা সামান্য জেলার দলীয় কর্মী। আমাদের মন্তব্য শোভনীয় নয়। তা ছাড়া ঝাড়গ্রাম জেলাপরিষদে মাত্র ২৪টি গ্রাম পঞ্চায়েতে খুব কম মার্জিনের ব্যবধানে হাত ছাড়া হয়েছে। জেলাপরিষদ, সমিতি সবই আছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here