তৃণমূলের যুব কমিটিতে নেতা, মন্ত্রীদের ছেলেমেয়েরা, দেবাংশু বাদ পড়ায় জল্পনা

0
দেবাংশু ভট্টাচার্য

কলকাতা: যুব তৃণমূলের নতুন কমিটিতে আগামী প্রজন্মের রমরমা। পাশাপাশি কমিটিতে যাঁরা রয়েছেন, তাঁদের অনেকেই তৃণমূল নেতা-নেত্রীদের সন্তান। অন্য দিকে, নতুন কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন দেবাংশু ভট্টাচার্য। যা নিয়ে জোর শোরগোল।

নেতা-মন্ত্রীদের ছেলেমেয়েরা

নতুন কমিটিতে ১৭ জন সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে জায়গা পেয়েছেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যর পুত্র সৌরভ বসু, বাণিজ্যমন্ত্রী শশী পাঁজার মেয়ে পূজা পাঁজা, কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের পুত্র সায়নদেব চট্টোপাধ্যায়, বর্ষীয়ান তৃণমূল নেতা সঞ্জয় বক্সীর পুত্র সৌম্য বক্সী, প্রয়াত বাম নেতা ক্ষিতি গোস্বামীর কন্যা বসুন্ধরা গোস্বামী। ১৭ জন সম্পাদকের তালিকায় রয়েছেন তৃণমূল রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীর পুত্র সপ্তর্ষি বক্সী, প্রয়াত মন্ত্রী সাধন পাণ্ডের কন্যা শ্রেয়া পাণ্ডে, কাশীপুর বেলগাছিয়ার বিধায়ক অতীন ঘোষের মেয়ে প্রিয়দর্শনী ঘোষ।

সায়নী ঘোষকে কে সভানেত্রী পদে রেখে নতুন কমিটিতে ৪ জন সহসভাপতি রাখা হয়েছে। এঁরা হলেন অভিনেতা তথা চণ্ডীপুরের বিধায়ক সোহম চক্রবর্তী, বাঘমুণ্ডির বিধায়ক সুশান্ত মাহাত, বিধায়ক স্বর্ণকমল সাহার পুত্র অর্পণ সাহা, নদিয়া জেলা তৃণমূলের দাপুটে নেতা শঙ্কর সিংহর পুত্র শুভঙ্কর সিংহ।

তৃণমূল ছাড়ছেন দেবাংশু?

এরই মধ্যে ফেসবুকে দেবাংশুর পোস্ট, ‘লেফ্‌ট জব অ্যাট অল ইন্ডিয়া তৃণমূল ইউথ কংগ্রেস’। যার বাংলা তর্জমা, ‘যুব তৃণমূল কংগ্রেসের দায়িত্ব ছাড়লাম’! ততক্ষণে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে। সঙ্গে সঙ্গেই পোস্টের নিচে একে এক কমেন্ট আসতে শুরু করে।

শেষপর্যন্ত নিজের পোস্টটি মুছে দেন দেবাংশু। এরপরই কালো ব্যাকগ্রাউন্ডে পোস্ট করলেন মন খারাপের ইমোজি। 

এর পরই প্রশ্ন ওঠে, তা হলে কি তৃণমূল ছাড়ছেন দেবাংশু? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “আমি তো সংগঠনেই ছিলাম না। দল আমাকে মুখপাত্র করেছে, এক বছরের মধ্যে যুবের সাধারণ সম্পাদক করেছে। এখন দলের মনে হয়েছে, যুবতে নতুন ছেলেমেয়ের দরকার। দল সেইমতো সিদ্ধান্ত নিয়েছে”।

কেন বাদ দেবাংশু

নতুন কমিটি থেকে দেবাংশু বাদ পড়তেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজ্য-রাজনীতিতে। কারণ সংগঠনের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ জনপ্রিয় তিনি। এই বদল প্রসঙ্গে তৃণমূল মুখপাত্র তথা দলের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ অবশ্য বলছেন, “এটি দলের সাংগঠনিক বিষয়। এই বিষয়ে আমি একেবারেই কিছু বলতে পারব না।” তবে দেবাংশু যে ভাল বক্তা, ভাল ছেলে এবং নতুন প্রজন্মের দলের অন্যতম সেরা সৈনিক, সেই কথাও লুকিয়ে রাখেননি কুণাল।

তবে নিজের ফেসবুক হ্যান্ডেলে একটি পোস্টে কুণাল আরও লেখেন, “অকারণ বাড়তি জল্পনা স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর।” এরই মধ্যে শোনা যাচ্ছে, যুব সংগঠন থেকে এ বার দেবাংশুকে আনা হতে পারে দলের মূল সংগঠনে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন