সিকিম বিচ্ছিন্ন, দার্জিলিং পাহাড়ও বিপর্যস্ত, আটকে পড়া পর্যটকদের পাশে দাঁড়াচ্ছে হোটেল-হোমস্টেগুলি

0

শিলিগুড়ি: করোনার কারণে এমনিতেই ধসে গিয়েছে পর্যটন ব্যবসা। সদ্য সেই ভয়াবহ পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠছিল পর্যটন সংস্থাগুলি। উত্তরবঙ্গে পর্যটনের পালে হাওয়া লেগেছিল। ভালো আবহাওয়াকে সাক্ষী রেখে দুর্গাপুজোর সময়টায় পাহাড় এবং ডুয়ার্সে পৌঁছে গিয়েছিলেন হাজার হাজার পর্যটক।

কিন্তু অসময়ের বৃষ্টিতে ফের ধাক্কা খেল পর্যটন। রেকর্ড ভাঙা বর্ষণের জেরে অসম্ভব বিপাকে পড়ে গিয়েছেন পর্যটকরা। আটকে পড়েছেন বিভিন্ন হোটেল এবং হোমস্টেতে। তবে বিপদের দিনে পর্যটকদের পাশে দাঁড়িয়েছেন হোটেল এবং হোমস্টের মালিকরা।

উত্তরবঙ্গ এবং সিকিমের এক হোটেল চেনের মুখপাত্র অভিষেক জোয়ারদার খবরঅনলাইনকে জানান বুধবার সকালে পরিস্থিতি অনেক বেশি খারাপ হয়ে গিয়েছে। এনজেপি থেকে সিকিমের রাস্তা সব দিক থেকেই বন্ধ হয়ে গিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের থেকে সম্পূর্ণ ভাবে বিছিন্ন হয়ে গিয়েছে গ্যাংটক। এই পরিস্থিতিতে তাঁদের সব কটা হোটেলেই এখন আটকে রয়েছেন পর্যটকরা।

কালিম্পং জেলার ঋষিখোলায় তাঁদের রিসর্টটির দোরগোড়ায় ঋষি নদীর জল চলে এসেছে বলে জানান তিনি। ফলে পর্যটকরা সেখানেও আটকে রয়েছেন।

অভিষেকবাবু বলেন, “গতকাল (মঙ্গলবার) পর্যন্ত পরিস্থিতি এক রকম ছিল। কয়েকটা জায়গায় রাস্তা বন্ধ ছিল। কিন্তু আজ সকাল থেকে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়ে গিয়েছে। পাহাড় পুরোপুরি বিপর্যস্ত। এনজেপি থেকে গ্যাংটকগামী সব রাস্তা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। পর্যটকদের বলেছি আজ আমাদের হোটেল থেকে না বেরোতে। সবার থাকার বন্দোবস্ত আমরা করে দেব।”

একই ভাবে পাহাড়ে ওঠার জন্য যাঁরা শিলিগুড়িতে অপেক্ষা করছেন, তাঁদের প্রতি অভিষেকবাবুর আবেদন, আরও দু’তিন দিন শিলিগুড়িতে থেকে তার পর তাঁরা যেন পাহাড়ে ওঠেন। একই আবেদন করা হয়েছে জেলা প্রশাসনের তরফেও। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি খুবই উদ্বেগজনক।

আজকের আরও কিছু উল্লেখযোগ্য খবর পড়ুন এখানে:

উত্তর যখন বিপর্যস্ত তখন স্বস্তির খবর দক্ষিণবঙ্গে, শুক্রবার থেকে শুরু প্রাক শীত

তিস্তার জলে ডুবে গেল জাতীয় সড়ক, প্রচুর জায়গায় ধস, বৃষ্টি থামছে না উত্তরবঙ্গে

টেস্ট বৃদ্ধির ফলে সংক্রমণ সামান্য বাড়লেও তা থাকল ১৫ হাজারের নীচেই, আরও কমল সক্রিয় রোগী

বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত উত্তরাখণ্ডের মৃত ৩৪, নিরাপদে উদ্ধার করা হল বাঙালি পর্যটকদের

নাইট কার্ফু-সহ বেশ কিছু বিধিনিষেধ বৃহস্পতিবার থেকে ফিরছে পশ্চিমবঙ্গে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন