ডোমকলের পর এ বার খানাকুল…

0
কী কারণে খুন? তদন্তে পুলিশ। প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: লোকসভা নির্বাচনের পর রাজ্য জুড়ে রাজনৈতিক হিংসা চলছেই। এ বার সেই হিংসার বলি হলেন এক তৃণমূল নেতা। ঘটনাটি ঘটেছে হুগলির খানাকুলে। দলীয় কার্যালয় থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে তাঁকে পিটিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠল।

শনিবার সন্ধ্যায় খানাকুলের হরিশচকে তৃণমূল কার্যালয়ে বসেছিলেন খানাকুল ২ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য ও প্রাক্তন কর্মাধ্যক্ষ মনোরঞ্জন পাত্র (৫৬)। সে সময় কিছু লোক এসে তাঁকে জোর করে তুলে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ।

রাত গভীর হলেও বাড়ি না ফেরায় সন্দেহ হয় মনোরঞ্জনবাবুর আত্মীয়দের। তাঁরা মনোরঞ্জনবাবুকে খুঁজতে বের হন। এর মধ্যেই এলাকার লোকজন মাঠের মধ্যে তাঁর মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে আত্মীয়দের খবর দেন। সেখান থেকে উদ্ধার করে তাঁকে খানাকুল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপিআশ্রিত দুষ্কৃতীরা ওই খুনের সঙ্গে জড়িত। বিজেপি অবশ্য ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

আরও পড়ুন বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজের ২২ চিকিৎসকের ইস্তফা

এই খুনের ঘটনায় পুলিশি নিস্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলে রাতেই খানাকুল থানায় বিক্ষোভ দেখায় তৃণমূল। রবিবার ঘটনাস্থলে যাওয়ার কথা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়েরও।

উল্লেখ্য, শনিবার সকালে ডোমকলে খুন হন এলাকায় নিহত তৃণমূল নেতা আলতাফ শেখের দুই আত্মীয়। ঘটনাক্রমে তাঁরাও তৃণমূলকর্মী হিসেবেও পরিচিত। সব মিলিয়ে রাজনৈতিক সংঘর্ষ কমার কোনো লক্ষণই নেই রাজ্যে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন