court hammer

কলকাতা: হাইকোর্টে বেকসুর খালাস পেলেন মাওবাদী সন্দেহে গ্রেফতার হওয়া পতিতপাবন হালদার এবং সন্তোষ দেবনাথ। একই সঙ্গে শুক্রবার আদালত মুক্ত করে পাঁচ বছর আগে মৃত মাওবাদী নেতা সুশীল রায়কেও।

পতিতপাবন সিপিআই (মাওবাদী)-র প্রথম রাজ্য সম্পাদক। তাঁকে ২০০৫ সালের ২১ মে হুগলির হিন্দ মোটর থেকে অস্ত্র এবং বিস্ফোরক আইনে গ্রেফতার করে পুলিশ। সেই ঘটনার ন’দিন পরে কলকাতার বড়োবাজার থেকে গ্রেফতার করা হয় সন্তোষকে। তিনি একজন রাজনৈতিক কর্মী।

পুলিশের অভিযোগ ছিল, তাঁরা মাওবাদীদের সঙ্গে যুক্ত। ফলে ‘রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা’র অভিযোগে তাঁদের ঝাড়গ্রাম দায়রা আদালত যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয়। আদালতের নির্দেশ মতো পতিতপাবনকে দমদম সংশোধনাগারে এবং সন্তোষকে প্রেসিডেন্সিতে রাখা হয়।

এরই মাঝে ঝাড়গ্রাম দায়রা আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে তাঁদের মুক্তির দাবিতে হাইকোর্টে আবেদন জানানো হয়। সিআরপিপি (কমিটি ফর রিলিজ পলিটিক্যাল প্রিজনার্স)-র তরফে তাঁদের মুক্তির দাবি তোলা হয়।

দীর্ঘ ১৪ বছর কারাবাসের পর এ দিন হাইকোর্ট তাঁদের মুক্তির নির্দেশ দেয়। এ দিন একই সঙ্গে আদালত মুক্তির নির্দেশ দেয় প্রয়াত মাওবাদী নেতা সুশীল রায়েরও।

পুরো ঘটনায় বিচার ব্যবস্থার দীর্ঘসূত্রিতার দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলছেন মানবাধিকার কর্মীরা। তাঁরা অবিলম্বে রাজনৈতিক বন্দিদের নি‌ঃশর্ত মুক্তির দাবিতে সরব হয়েছেন।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন