bankura
পরিদর্শনে জেলাশাসক এবং বাকিরা

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাঁকুড়া: প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ সড়ক যোজনা প্রকল্পে রাস্তা তৈরি করার গর্তে মাটি চাপা পড়ে রবিবার মৃত্যু  হয়েছে তিন শিশুর। এর পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার বাঁকুড়ার পাত্রসায়র থানা এলাকার জামকুড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার আখড়াশোল গ্রামের দুর্ঘটনাস্থল ঘুরে দেখলেন বাঁকুড়ার জেলাশাসক ডঃ উমাশঙ্কর এস।

জেলাশাসকের সঙ্গে ছিলেন পুলিশ সুপার কোটেশ্বর রাও, বিষ্ণুপুরের এসডিপিও সুকোমলকান্তি দাস, সভাধিপতি মৃত্যুঞ্জয় মুর্মু, অরূপ খাঁ প্রমুখ। দুর্ঘটনাস্থল ঘুরে দেখার পাশাপাশি মৃত শিশুর পরিবারের সঙ্গেও কথা বলেন তাঁরা।

উল্লেখ্য, রবিবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনায় একটি রাস্তা তৈরির কাজে খোঁড়া গর্তের মাটি চাপা পড়ে মৃত্যু হয় শিল্পা বাউরি (১৩), পূজা বাউরি (১০) ও রিয়া বাউরি (৯) নামে তিন শিশুর। গুরুতর আহত বৃষ্টি বাউরি ও কৃষ্ণ বাউরি নামে আরও দুই শিশু। তাদের বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা চলছে।

এই ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। একই সঙ্গে রাস্তা তৈরির সঙ্গে যুক্ত ঠিকাদারি সংস্থার বিরুদ্ধে এলাকার মানুষের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। এ বিষয়ে প্রশাসনিক দৃঢ় পদক্ষেপ নেওয়ার দাবিও জোরালো হচ্ছে এলাকায়। স্থানীয় বাসিন্দা বিদ্যুৎ বাউরি, পিরুপদ ঘোষ বলেন, রাস্তার পাশের জমির মাটি না কেটে বাইরে থেকে মাটি নিয়ে এলে এই দুর্ঘটনা হত না। অভিযুক্ত ঠিকাদারি সংস্থার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে এ দিন তাঁরা সরব হন।

আরও পড়ুন সরছেন রাজীব কুমার, কলকাতার নতুন কমিশনার অনুজ শর্মা

এ দিন সকালে ওই গ্রামে গিয়ে জেলাশাসক ডাঃ উমাশঙ্কর এস বলেন, “বিষয়টি রাজ্য সরকারকে জানানো হয়েছে। ঘটনার তদন্তে রাজ্য সরকারের তরফে বিশেষ দল পাঠানো হচ্ছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মৃত তিন শিশুর পরিবারকে এককালীন দু’লক্ষ টাকা করে দেওয়া হবে।”

এ ছাড়াও আহতদের প্রত্যেককে চিকিৎসার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানান উমাশঙ্কর।

জেলা পুলিশ সুপার কোটেশ্বর রাও বলেন, “ঘটনার তদন্ত চলছে। আগামী দিনে এই রাস্তা তৈরির সময়ে পুলিশের পক্ষ থেকে আগাম নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হবে।” অন্য দিকে, জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অরূপ খাঁ জেলা ও স্থানীয় ব্লক তৃণমূলের পক্ষ থেকে মৃত শিশুর পরিবারগুলির হাতে বেশ কিছু অর্থ সাহায্য এ দিন তুলে দেওয়া হয়।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন