ওয়েবডেস্ক: ঠিক যেন পাঁচ বছর আগের স্মৃতি ফিরে এল। সে বার কাঞ্চনজঙ্ঘা অভিযানে গিয়ে চিরতরে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন ছন্দা গায়েন। ঠিক সেই রকম ঘটনায় সম্ভবত ঘটতে চলেছে বাংলার দুই পর্বতারোহী কুন্তল কাঁড়ার এবং বিপ্লব বৈদ্যর ক্ষেত্রেও।

সরকারি ভাবে এখনও নিশ্চিত করে কিছু না জানানো হলেও পর্বতারোহণ এজেন্সি ‘পিক প্রোমোশন’ জানিয়েছেন মৃত্যু হয়েছে কুন্তলবাবু এবং বিপ্লববাবুর। সংস্থার ম্যানেজার ‘দ্য হিমালয়ান টাইম্‌স‘কে জানিয়েছেন, “উচ্চতাজনিত রোগে (হাই অল্টিচিউড সিকনেস) মৃত্যু হয়েছে তাঁদের।”

অন্য দিকে পর্বতারোহণ সম্পর্কিত পোর্টাল ‘ড্রিম ওয়ান্ডারলাস্টের’ সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কাঞ্চনজঙ্ঘার ‘ডেথ জোনে’ আহত অবস্থায় আটকে পড়া কুন্তলবাবু ও বিপ্লববাবুকে উদ্ধার করার প্রথম অভিযান ব্যর্থ হয়েছে। তাঁদের উদ্ধার করার আশা ক্রমশ ক্ষীণ হচ্ছে। দু’জনকে উদ্ধার করার জন্য শীঘ্রই আর কোনো অভিযান করা যাবে না বলেও জানিয়েছেন শেরপারা।

কুন্তল কাঁড়ার।

পাশাপাশি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বুধবার কাঞ্চনজঙ্ঘা জয় করা আরও দুই পর্বতারোহী রমেশ রায় এবং শেখ শাহবুদ্দিন। অন্য দিকে দলের আরও এক সদস্য রুদ্রপ্রসাদ হালদার গুরুতর ফ্রস্ট বাইটে আক্রান্ত হয়েছেন।

অনেক প্রতিকূলতাকে জয় করেই বুধবার সকালে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম শৃঙ্গ কাঞ্চনজঙ্ঘা জয় করেন চার বাঙালি পর্বতারোহী । তবে তাঁদের মধ্যে বিপ্লব বৈদ্য থাকলেও, সামিটে পৌঁছোনোর আগেই কুন্তলবাবু অসুস্থ হয়ে যান। বুধবার দুপুরে খবর আসে অসুস্থ হয়ে পড়েন বিপ্লববাবুও। কুন্তলবাবু এবং বিপ্লববাবুর অসুস্থ হওয়ার ঘটনায় গভীর চিন্তায় রাজ্যের পর্বতারোহী মহল।

(এই দুই পর্বতারোহীর মৃত্যুর ব্যাপারে এখনও সরকারি ভাবে কিছু জানানো হয়নি। সরকারি বিবৃতি এলেই সঠিক তথ্য আপনাদের কাছে তুলে ধরা হবে)

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here