রামনবমীর মিছিলকে ঘিরে সংঘর্ষে উত্তপ্ত রানিগঞ্জ, বোমায় গুরুতর আহত ডিসি

0

রানীগঞ্জ: রামনবমীকে কেন্দ্র করে রবিবার পুরুলিয়া ছাড়া রাজ্যের কোথাও বড়োসড়ো গোলমালের ঘটনা না ঘটলেও সোমবার উত্তপ্ত হয়ে উঠল পরিস্থিতি। রামনবমীর শোভাযাত্রাকে কেন্দ্র করে দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ লাগল পশ্চিম বর্ধমানের রানিগঞ্জে। বোমায় গুরুতর আহত হলেন এক পুলিশকর্তা।

রানিগঞ্জ শহরে সোমবার সকালে রামনবমীর মিছিল বার করে বিজেপি। মিছিল হিল বস্তির কাছাকাছি পৌঁছোতেই গোলমাল শুরু হয়। স্থানীয় সূত্রের খবর, মিছিলে গান বাজানো নিয়ে আপত্তি তোলে হিল বস্তি এলাকার কিছু যুবক। মিছিল ঘুর পথে নিয়ে যাওয়ারও অনুরোধ করা হয়। এর পরেই দু’পক্ষে বচসা শুরু হয়। বচসা দ্রুতই সংঘর্ষের রূপ নেয়। শুরু হয় ইটবৃষ্টি।

Loading videos...

গোলমালের খবর পেয়ে পুলিশ পৌঁছোয় হিল বস্তিতে। পুলিশও স্থানীয়দের হামলার মুখে পড়ে বলে অভিযোগ। এর পরেই শহরের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে উত্তেজনার আঁচ। ভাঙচুর চালানো হয় একাধিক বাড়িতে। রাস্তার ধারের একাধিক দোকান জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রানিগঞ্জ জুড়ে নামে পুলিসবাহিনী, র‍্যাফ। ঘটনাস্থলে ছিলেন ডিসি (সদর) অরিন্দম দত্ত চৌধুরী। আচমকাই ভিড়ের মধ্যে তাঁকে লক্ষ করে বোমা ছোড়ে কেউ। কিন্তু ইট ভেবে সেটি হাত দিয়েই আটকাতে যান পুলিসকর্তা। বোমা ফেটে কার্যত উড়ে যায় তাঁর ডান হাত। ইটের আঘাতে জখম ওসি-সহ আরও পাঁচ জন পুলিশকর্মী। তিনি দুর্গাপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাঁর হাতে অস্ত্রোপচার করা হবে।

শেষ পাওয়া খবরে রানিগঞ্জের পরিস্থিতি এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনা গিয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

অন্য দিকে রামনবমীর মিছিলকে কেন্দ্র করে সোমবার উত্তেজনা ছড়িয়েছে মুর্শিদাবাদের কান্দিতেও। সোমবার সকাল দশটা নাগাদ হিন্দুত্ববাদী একটি সংগঠনের সমর্থকেরা অস্ত্র হাতে মিছিল করতে শুরু করলে পুলিশ বাধা দেয়। এবং তার পরেই পুলিশ ও মিছিলকারীদের মধ্যে খণ্ডযুদ্ধ বেধে যায় কান্দিতে। মিছিলকারীরা থানায় ঢুকে পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করে। বিক্ষোভকারীদের সামলাতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ এবং তার পর পুলিশকে লক্ষ করে ইটবৃষ্টি শুরু করে বিক্ষোভকারীরা।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন