West Bengal Industries

কলকাতা: শিল্প কর বা কর্পোরেট ট্যাক্স আদায়ে মহারাষ্ট্র, কর্ণাটক, দিল্লি, তামিলনাড়ু এবং অন্ধ্রপ্রদেশের পরের স্থানটিই দখল করল বাংলা। আয়কর বিভাগের ঘোষণা মতোই গত ১৫ সেপ্টেম্বর ছিল বছরের প্রথমার্ধের কর জমা দেওয়ার শেষ দিন। বিভাগের পরিসংখ্যান থেকেই জানা গিয়েছে, দেশের মধ্যে রাজ্যওয়াড়ি ভাবে ষষ্ঠ স্থান অধিকার করেছে বাংলা।

অন্য দিকে তুল্যমূল্য বিচারে শিল্পের সংখ্যার নিরিখে বাংলার থেকে অনেকটা এগিয়ে গুজরাতের আয়কর আদায়ের পরিমাণ নীচের দিকে। সে দিক থেকে গুজরাতকে পিছনে ফেলে দিয়েছে বাংলা।

চলতি ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরের প্রথমার্ধে গত ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে জমা দেওয়া কর্পোরেট ট্যাক্সের কিস্তির পরিমাণ রাজ্যওয়াড়ি ভাবে প্রকাশ করেছে আয়কর বিভাগ। সেখান থেকেই জানা গিয়েছে, এই মেয়াদকালে বাংলা থেকে কর্পোরেট ট্যাক্স বাবদ আদায় হয়েছে ১২ হাজার ৩৩০ কোটি ৪০ লক্ষ টাকা। অন্য দিকে গুজরাতে এই কর আদায়ের পরিমাণ ১১ হাজার ১৬৯ কোটি ৬০ লক্ষ টাকা।

অর্থনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, শিল্পস্থাপনে শুধু সংখ্যার দিক থেকে এগিয়ে থাকলেই হয় না। চালু শিল্পগুলি থেকে কী পরিমাণ আয় হচ্ছে, সেই বিষয়টিই সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন অসংখ্য শিল্পপতিকে একাধিক সুয়োগ-সুবিধা পাইয়ে দিয়ে সেই রাজ্য দেশের মধ্যে মডেল গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন। কিন্তু আয়কর বিভাগের এই ধরনের পরিসংখ্যানগুলিই স্পষ্ট করে দেয়, শিল্পসংখ্যায় এগিয়ে থেকে কোনো লাভ নেই। শিল্পগুলির আয়ের বিষয়টিই সর্বাগ্রে বিবেচ্য। সেগুলির আয়ের পরিমাণ বাড়লে তবেই তো আয়কর জমার পরিমাণও বাড়বে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here