শুধুই বাংলা বা বঙ্গ, আর বেঙ্গল: প্রস্তাব মন্ত্রিসভার

0

আবার রাজ্যের নাম বদলের চেষ্টা। পশ্চিমবঙ্গ নয়, এ বার থেকে শুধুই ‘বাংলা’ বা ‘বঙ্গ’। আর ইংরিজিতে ‘বেঙ্গল’। মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই প্রস্তাবই পাশ হয়েছে।

সম্প্রতি দিল্লিতে নীতি আয়োগের বৈঠকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী বেশ কম সময় পেয়েছিলেন বলার জন্য। এবং তিনি যখন বলতে ওঠেন, তখন অনেক মুখমন্ত্রীই চলে গিয়েছেন। সাধারণত এ ধরনের বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীরা তাঁদের রাজ্যের নামের আদ্যাক্ষরের ক্রম অনুসারে বলার সুযোগ পান। পশ্চিমবঙ্গের ইংরেজি নাম যে হেতু ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল’ সে হেতু রাজ্যের নামের আদ্যাক্ষরে রয়েছে ‘ডব্লিউ’। ‘ডব্লিউ’-এর সুবাদে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলার সুযোগ পান সব চেয়ে শেষে, যখন দীর্ঘ বৈঠক করে সবাই প্রায় ক্লান্ত। ব্যাপারটিতে বেশ ক্ষুব্ধ হন মুখ্যমন্ত্রী। এই ‘বঞ্চনা’ থেকে উদ্ধার পেতেই সম্ভবত আবার রাজ্যের নাম বদলের চেষ্টা শুরু হল বলে মনে করছে তথ্যাভিজ্ঞ মহল।     

মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর পরিষদীয়মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, রাজ্যের নতুন নাম সংক্রান্ত প্রস্তাব পাশ করানোর জন্য ২৬ আগস্ট বিধানসভার বিশেষ অধিবেশন ডাকা হয়েছে। ওই দিন প্রয়াত সাহিত্যিক মহাশ্বেতা দেবীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ও শোকপ্রস্তাব গ্রহণ করে সভা মুলতুবি হয়ে যাবে। ২৭ ও ২৮ আগস্ট নাম সংক্রান্ত প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করা হবে। মন্ত্রিসভার প্রস্তাব নিয়ে সর্বদলীয় বৈঠকও হবে। প্রস্তাব অনুমোদিত হলে তা কেন্দ্রের কাছে পাঠানো হবে।

পরিষদীয়মন্ত্রী বলেন, “সময়ের প্রয়োজনে, রাজ্যবাসীর প্রয়োজনে রাজ্যের নাম পরিবর্তনের প্রস্তাব করা হচ্ছে।”

রাজ্যের নাম বদলের প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছে বিজেপি। দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, বিধানসভায় এই প্রস্তাবের বিরোধিতা করবেন তাঁরা। এটা গিমিক ছাড়া কিছুই নয়। প্রয়োজন হলে গণভোট করে সিদ্ধান্ত নেওয়া যেতে পারে। 

ইতিমধ্যে বিদ্বজ্জনেরা তাঁদের মতামত জানাতে শুরু করেছেন। কবি শঙ্খ ঘোষ জানিয়েছেন, তিনি ‘বাংলা’ নামের পক্ষে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন