Connect with us

রাজ্য

৩২ হাজারের বেশি নমুনা পরীক্ষা, রাজ্য়ে দৈনিক আক্রান্ত ফের সাতশোর নীচে

বৃহস্পতিবার রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার অনেকটাই কমল।

Published

on

থার্মাল স্ক্রিনিং। সংগৃহীত ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক: রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণ ফের সাতশোর নীচে নামল বৃহস্পতিবার। এক দিনে ৩২ হাজারের বেশি নমুনা পরীক্ষার পরেও দৈনিক আক্রান্তের এই সংখ্যা যথেষ্ট আশাব্যঞ্জক।

রাজ্যের করোনা-পরিস্থিতি

বৃহস্পতিবার রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের পেশ করা পরিসংখ্যান অনুযায়ী, শেষ ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৮০। যা আগের দিন ছিল ৭২৩। এখনও পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লক্ষ ৬৩ হাজার ৪৭৫ জন।

অন্যদিকে, এখনও পর্যন্ত করোনামুক্ত হয়েছেন ৫ লক্ষ ৪৬ হাজার ১৯৩ জন। শেষ ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬৯৪ জন। রাজ্যে সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৯৬.৯৩ শতাংশ।

Loading videos...

এখনও পর্যন্ত চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৭ হাজার ২৭২ জন। শেষ ২৪ ঘণ্টায় সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমেছে ৩১।

এ দিন ফের ১৭ জনের মৃত্যু হওয়ায়, রাজ্যের মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ১০।

দৈনিক সংক্রমণের হার কমল

বৃহস্পতিবার রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার অনেকটাই কমল। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৩২ হাজার ৬১৭টি টেস্ট হয়েছে। এর বিপরীতে আক্রান্তের হার ছিল ২.০৮ শতাংশ। বুধবার এই হার ছিল ২.৪০ শতাংশ।

এ দিকে রাজ্যে সামগ্রিক সংক্রমণের হার সামান্য হলেও কমেছে। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট ৭৫ লক্ষ ৬০ হাজার ৫৬১টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। সংক্রমণের হার রয়েছে ৭.৪৫ শতাংশ।

কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনায় দৈনিক আক্রান্ত দু’শোর নীচে

কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনায় চওড়া ওঠানামা করছে দৈনিক সংক্রমণ। তবে এ দিন দুই জেলাতেই দৈনিক সংক্রমণ দু’শোর নীচে।

শেষ ২৪ ঘণ্টায় কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনায় আক্রান্তের সংখ্যা যথাক্রমে ১৫৯ এবং ১৮৬। বিপরীতে সুস্থতার সংখ্যা ২০৩ এবং ১৪৮। কলকাতায় এক দিনে মৃত্য়ু হয়েছে চার জনের, উত্তর ২৪ পরগনায় মৃত আরও সাত জন।

জেলায় জেলায়

এ দিন রাজ্যের আর কোনো জেলাতেই দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ৫০-এর গণ্ডি পার করেনি। তবুও পশ্চিম বর্ধমান (আক্রান্ত-৪১, সুস্থ-২৬, মৃত-নেই), দক্ষিণ ২৪ পরগনা (আক্রান্ত-৩৭, সুস্থ-১৭, মৃত-১), হাওড়া (আক্রান্ত-৩৬, সুস্থ-৪৬, মৃত-১), হুগলি (আক্রান্ত-৩২, সুস্থ-৪৫, মৃত-২) এবং মুর্শিদাবাদ (আক্রান্ত-৩০, সুস্থ-১১, মৃত-নেই) উল্লেখযোগ্য। *বন্ধনীতে শেষ ২৪ ঘণ্টার পরিসংখ্যান

আরও পড়তে পারেন: দৈনিক সংক্রমণ ফের ২ শতাংশের উপরে, তবে সার্বিক পরিস্থিতি আশাব্যঞ্জক

রাজ্য

রাজ্যে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ফের চারশোর নীচে, তবে হেরফের সংক্রমণের হারে

আগের দিনের থেকে এ দিন দৈনিক সংক্রমণের হার কিছুটা বেড়ে হয়েছে ১.৫৪ শতাংশ।

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: ১৮ জানুয়ারির পর রবিবার ফের রাজ্যে দৈনিক করোনা সংক্রামিতের সংখ্যা চারশোর নীচে। উল্লেখযোগ্য ফারাকটা হল, আগের দিন যেখানে নমুনা পরীক্ষা হয়েছিল ১৯ হাজারের কম, এ দিন তা হয়েছে ২৫ হাজারের বেশি।

রাজ্যের করোনা-পরিস্থিতি

গত ২৪ ঘণ্টায় পশ্চিমবঙ্গে নতুন করে কোভিডে (Covid 19) আক্রান্ত হয়েছেন ৩৮৯ জন। এর ফলে রাজ্যে মোট কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫ লক্ষ ৬৮ হাজার ১০৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪৫৪ জন। এর ফলে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট কোভিডজয়ীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫ লক্ষ ৫১ হাজার ৬৬৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৮ জনের। এর ফলে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ১০ হাজার ১১৫।

Loading videos...

রাজ্যে বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৬ হাজার ৩২৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৩ জন সক্রিয় রোগী কমেছে রাজ্যে। রাজ্যে সুস্থতার হার বর্তমানে ৯৭.১১ শতাংশ।

দৈনিক সংক্রমণের হার বাড়ল

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হারে কিছুটা বৃদ্ধি ধরা পড়েছে। এ দিন রাজ্যে ২৫ হাজার ২০৭টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। ফলে এ দিন দৈনিক সংক্রমণের হার ছিল ১.৫৪ শতাংশ।

এ দিকে রাজ্যে সামগ্রিক সংক্রমণের হারও আরও কিছুটা কমেছে। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট ৭৮ লক্ষ ৩৩ হাজার ২৮৯টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। সংক্রমণের হার রয়েছে ৭.২৫ শতাংশ।

কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগণার পরিস্থিতি

উত্তর ২৪ পরগণায় সংক্রমণ একশোর ওপরে থাকলেও কলকাতায় তা একশোর নীচেই রয়েছে। দুই জেলাতেই নতুন করে আক্রান্ত এবং সুস্থতার সংখ্যায় খুব বেশি পার্থক্য নেই এ দিন।

কলকাতায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৯৩ জন এবং উত্তর ২৪ পরগণায় ১৩০ জন নতুন করে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। কলকাতায় ৮৯ আর উত্তর ২৪ পরগণায় ১২৭ জন সুস্থ হয়েছেন। কলকাতা দু’ জন এবং উত্তর ২৪ পরগণায় তিনজন কোভিডরোগীর মৃত্যু হয়েছে গত ২৪ ঘণ্টায়।

২০ অথবা তার বেশি

এ দিন রাজ্যের তিন জেলায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ২০ অথবা তার বেশি। এগুলির মধ্যে রয়েছে হাওড়া (আক্রান্ত-২১, সুস্থ-৩১, মৃত-১), হুগলি (আক্রান্ত-২০, সুস্থ-৩৪, মৃত-নেই) এবং দার্জিলিং (আক্রান্ত-২০, সুস্থ-১৬, মৃত-নেই)।

আরও পড়তে পারেন: কেরল, কর্নাটকে ফের চিন্তা বাড়াল করোনার দৈনিক সংক্রমণ

Continue Reading

রাজ্য

আদি-নব্য দ্বন্দ্ব কাটাতে দিলীপ ঘোষের স্পষ্ট বার্তা

সামনে বিধানসভা ভোট, অন্য দল থেকে নেতা-কর্মীদের না নিলে বিজেপি বাড়বে কী করে?

Published

on

দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক: ভিন দল থেকে আসা নেতা-কর্মীদের নিয়ে কখনও-সখনও ক্ষোভ দেখা দিচ্ছে বিজেপির পুরনো নেতাদের মধ্যে। এমন পরিস্থিতিতে স্পষ্ট বার্তা দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রবিবার তিনি বলেন, বিজেপির প্রসার ঘটাতে অন্যান্য দলের নেতাদেরও গেরুয়া শিবিরে অন্তর্ভুক্ত করা দরকার।

তৃণমূল থেকে একাধিক নেতা-মন্ত্রীর বিজেপিতে যোগ দিয়েই দলের উঁচুপদে জায়গা পেয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ করছেন পুরনোরা। যা নিয়ে দলের পুরনো নেতাদের মনে ক্ষোভের সঞ্চার হচ্ছে। এমন আবহে বিজেপি রাজ্য সভাপতি রবিবার বলেন, রাজনৈতিক আনুগত্যের পরিবর্তন সবসময় নেতৃত্বের অবস্থানের গ্যারান্টি দেয় না। দিলীপের এই মন্তব্য দলের পুরনো নেতৃত্বের কিছুটা হলেও স্বস্তি দিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে তিনি জোরের সঙ্গে এ কথাও বলেন, যাতে দলের ভিত্তি প্রসারিত হয় এবং বাংলায় ক্ষমতায় আসে, সে কারণেই অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সদস্য অন্তর্ভুক্ত করা প্রয়োজন।

Loading videos...

সংবাদ সংস্থা পিটিআই-কে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, প্রত্যেকের দরকার দলীয় শৃঙ্খলা এবং নিয়মানুবর্তিতা মেনে চলা। সেটা পুরনো হোক বা নবাগত।

দিলীপ বলেন, “পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে। প্রতিটা দিন আমাদের সংগঠন শক্তিশালী হচ্ছে। তৃণমূল-সহ অন্য দল থেকেও অনেকে আমাদের সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন। আমরা যদি তাঁদের স্বাগত না জানাই, তা হলে কী করে বেড়ে উঠব”।

তৃণমূল নেতাদের দলে নেওয়া নিয়ে কয়েকটি জায়গায় বিজেপির অন্তর্দ্বন্দ্ব দেখা দেওয়ার খবর সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কে আসছেন, সেটা বড়ো কথা নয়। আসল কথা হল, দলের শৃঙ্খলা এবং নিয়মানুবর্তিতা মেনে চলা হচ্ছে কি না। কেউ-ই দলের ঊর্ধ্বে নন।

বিজেপির আদর্শগত অভিভাবক আরএসএস-এর নেতৃত্বও এই ঘটনায় খুব একটা খুশি নয় বলে শোনা যাচ্ছে। এ ব্যাপারে বিজেপি রাজ্য সভাপতি বলেন, “সেটা সবাইকে নিয়ে নয়। কয়েক জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে। তবে একটা কথা মাথায় রাখতে হবে যে আমাদের সঙ্গে যাঁরা যোগ দেবেল, তাঁদের প্রত্যেককেই নেতৃত্বের পদ দেওয়া হবে না”।

আরও পড়তে পারেন: এখনও তৃণমূলেই রয়েছেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্য়ায়, রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ কোন দিকে

Continue Reading

রাজ্য

উন্নয়ন দেখাতে ‘ছানিশ্রী’ প্রকল্প করবে সরকার, বিজেপিকে কটাক্ষ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

কুলতলির সভা থেকে শুভেন্দু অধিকারীকে লাগামহীন আক্রমণ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

Published

on

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

খবর অনলাইন ডেস্ক: রবিবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলতলির সভা থেকে বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে রাজ্য সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মসূচিগুলি তুলে ধরে তিনি বলেন, যাঁরা উন্নয়ন দেখতে পাচ্ছেন না, তাঁদের চোখে ছানি পড়েছে। রাজ্য সরকার তাঁদের জন্য ছানিশ্রী প্রকল্প শুরু করবে।

অভিষেক যা বললেন…

*যাঁরা জয় শ্রীরাম বলেন, তাঁরা বাড়িতে বলুন, মন্দিরে বলুন, যে যাঁর ধর্মীয় রীতি পালন করুন। কিন্তু জনপ্রতিনিধিদের ধর্ম মানব ধর্ম। মানুষের কাছে পরিষেবা পৌঁছে দেওয়াটাই আপনার ধর্ম।

*যতই নাড়ো কলকাঠি, নবান্নে আবার হাওয়াই চটি। যত দিন মুখ্যমন্ত্রী রয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, যত দিন তাঁর প্রতি আপনাদের সমর্থন রয়েছেন, তত দিন বাংলাকে কেউ আঘাত করতে পারবেন না।

Loading videos...

*এই জেলা থেকেই পরিবর্তনের চাকা ঘুরেছিল। ৩১-এ ৩১ করার সংকল্প নিতে হবে। কুলতলিতে তৃণমূল প্রার্থীই জিতবেন। ৫০ হাজারের বেশি ভোটে জিতবেন।

*তোমাদের মোদী সাত বছরে কী করেছেন, আর আমাদের দিদি ১০ বছরে কী কাজ করেছেন, দু’টোর তুল্যমূল্য বিচার করুন। যদি না ১০-০ গোলে মোদীকে হারাতে পারি, তা হলে রাজনীতির ময়দান ছেড়ে দেব।

*যাঁরা বলছেন, বাংলায় কাজ হয়নি। কন্যাশ্রী, রুপশ্রী, যুবশ্রী সবুজসাথী প্রকল্প তাঁরা দেখতে পান না। এ বার রাজ্য সরকার একটা প্রকল্প করবে, যেটার নাম ছানিশ্রী। যাঁরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়ন চোখে দেখতে পাচ্ছেন না, তাঁরা সেখানে ছানি কাটিয়ে নেবেন।

*১০ বছর খেয়ে মধু, মিরজাফর আজ হল সাধু। কথায় কথায় বলে, লড়াইয়ের ময়দানে দেখা হবে। এই জনতার ময়দানে দাঁড়িয়ে কথা দিচ্ছি, হবে লড়াই? আয়। সুদীপ্ত সেন চিঠিতে লিখেছেন, মানুষের ছ’কোটি টাকা মেরেছেন শুভেন্দু অধিকারী। সুদীপ্ত লিখেছেন, তাঁকে ব্ল্যাকমেল করে ওই টাকা নিয়েছিল। তা হলে চোর কে? আর আজকে সিবিআইয়ের ভয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছে। তুমিও মানুষ, আমিও মানুষ, তফাতটা শুধু শিরদাঁড়া আর মেরুদণ্ডের।

*২০১৬ সালেই এঁদের দল থেকে বের করে দেওয়ার কথা বলেছিলাম। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদারতার সুযোগ নিয়ে এঁরা এখন বড়োবড়ো কথা বলছেন। সততার প্রতিমূর্তি সাজছে। নারদার টিভির পরদায় তুমি লক্ষ লক্ষ টাকা ঘুষ খাচ্ছো। আর ভাইপোর নাম নেওয়া ক্ষমতা নেই, তোলাবাজ ভাইপোর কথা বলছ?

*আমার বিরুদ্ধে লড়বি। আমি তোর বিরুদ্ধে প্রমাণ দিয়েছি। তুই আমার বিরুদ্ধে সরাসরি যুক্ত থাকার প্রমাণ দে, আমি ফাঁসিতে গিয়ে মৃত্যুবরণ করব। পারবি তা, করতে। এ তো সবে একটা নাম বললাম। আমার কাছে এ রকম ভুরি ভুরি চিঠি এসেছে।

*তোমাদের তো বুকের পাটা নেই। আমি নাম নিয়ে বলছি দিলীপ ঘোষ গুন্ডা। কৈলাস বিজয়বর্গীয়, অমিত শাহ বহিরাগত। আমি ভাববাচ্যে কথা বলি না। ক্ষমতা থাকলে আমার বিরুদ্ধে মামলা করুন।

*আজকে পঞ্চাশটা ক্যামেরার সামনে নাম নিয়ে বলছি, ঘুষখোর শুভেন্দু অধিকারী তোর ক্ষমতা থাকলে আমার বিরুদ্ধে মামলা করে দেখা।

আরও পড়তে পারেন: এখনও তৃণমূলেই রয়েছেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্য়ায়, রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ কোন দিকে

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
ফুটবল6 hours ago

জামশেদপুর, হায়দরাবাদ, ওড়িশা ও বেঙ্গালুরু – ৪টি দলই ১ পয়েন্ট করে ঘরে তুলল

রাজ্য9 hours ago

রাজ্যে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ফের চারশোর নীচে, তবে হেরফের সংক্রমণের হারে

রাজ্য10 hours ago

আদি-নব্য দ্বন্দ্ব কাটাতে দিলীপ ঘোষের স্পষ্ট বার্তা

Rape
দেশ11 hours ago

‘ত্বক থেকে ত্বকে সংযোগ’ ছাড়া ‘নিছক অনুভূতি’কে যৌন নিপীড়ন বলা যায় না: হাইকোর্ট

কলকাতা12 hours ago

কালীঘাটে বস্তা ভরতি পোড়া টাকা উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য

দেশ13 hours ago

১ ফেব্রুয়ারি থেকে স্বাভাবিক ট্রেন পরিষেবা চালু করবে রেল? সত্য জানুন এখানে

দেশ14 hours ago

নেতাজিকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের পর ভোলবদল বিজেপি সাংসদের

রাজ্য15 hours ago

উন্নয়ন দেখাতে ‘ছানিশ্রী’ প্রকল্প করবে সরকার, বিজেপিকে কটাক্ষ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

কলকাতা3 days ago

ভয়াবহ বাইক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত সাংবাদিক ময়ূখ রঞ্জন ঘোষ, সতীর্থের মৃত্যু

হাওড়া2 days ago

বালির বিধায়ক বৈশালী ডালমিয়াকে দল থেকে বহিষ্কার করল তৃণমূল

শরীরস্বাস্থ্য3 days ago

কেন খাবেন মটরশুঁটি, জেনে নিন এর উপকারিতা

জীবন যেমন3 days ago

কম বয়সে মুখে বলিরেখা? রান্না ঘরেই আছে এর সমাধান, একমাসে

ফুটবল3 days ago

আক্রমণ বিভাগ নিয়ে দুশ্চিন্তা কাটাতে পারছেন না আন্তোনিও লোপেজ আবাস

ফুটবল3 days ago

মুম্বইকে আটকাতে বদ্ধপরিকর বদলে যাওয়া ইস্টবেঙ্গল

rajib banerjee
রাজ্য3 days ago

মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দিয়ে রাজভবনে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়

বিনোদন2 days ago

বাজেটের আগে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ মাল্টিপ্লেক্স কর্তৃপক্ষের, সঙ্গে সানি দেওল

কেনাকাটা

কেনাকাটা1 day ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা2 days ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা3 days ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা3 days ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা4 days ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা5 days ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা7 days ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা2 weeks ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা2 weeks ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

নজরে