‘ভোট-পরবর্তী হিংসা’য় হাইকোর্টের নির্দেশ পুনর্বিবেচনার আর্জি রাজ্যের

0
কলকাতা হাইকোর্ট
কলকাতা হাইকোর্ট। প্রতীকী ছবি: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস থেকে

খবর অনলাইন ডেস্ক: ভোট-পরবর্তী হিংসার ঘটনায় জাতীয় মানবাধিকার কমিশনকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট। বলা হয়েছিল, কাজে সহযোগিতা করবে রাজ্য মানবাধিকার কমিশন। হাইকোর্টের সেই নির্দেশ পুনর্বিবেচনার আর্জি জানাল রাজ্য।

ভোট-পরবর্তী হিংসা মামলায় গত শুক্রবার এই নির্দেশ দিয়েছিল উচ্চ আদালত। সেই নির্দেশ পুনর্বিবেচনার দাবিতেই বৃহত্তর বেঞ্চের দ্বারস্থ হল রাজ্য। পুনর্বিবেচনার আর্জির জেরে সোমবার ফের হাইকোর্টে এই মামলার শুনানি হবে।

Loading videos...

কী বলেছিল হাইকোর্ট?

গত ১৮ জুন হাইকোর্টে এই মামলার শুনানি করে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দালের নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ। বলা হয়, ভোট-পরবর্তী হিংসার জেরে ঘরছাড়া হওয়া ব্যক্তিদের যাবতীয় অভিযোগ খতিয়ে দেখার কাজে সহযোগিতা করবে রাজ্য মানবাধিকার কমিশন। বলা হয়েছে, কেন্দ্রের মানবাধিকার কমিশন রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখবে। তাদের সাহায্য করবে রাজ্য মানবাধিকার কমিশন।

মামলার শুনানিতে হাইকোর্টের পর্যবেক্ষণে বলা হয়, “ভোট-পরবর্তী হিংসার কথা স্বীকার করেনি রাজ্য সরকার। কিন্তু আমাদের কাছে যে অভিযোগ জমা পড়েছে, তাতে ভোট-পরবর্তী হিংসার প্রমাণ মিলেছে। ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরাতে যে কমিটি গঠন করা হয়েছিল, তাতে রাজ্য ও কেন্দ্রের মানবাধিকার কমিশন ও রাজ্য লিগ্যাল সার্ভিসের প্রতিনিধিরা ছিলেন। কিন্তু কেন্দ্রের মানবাধিকার কমিশন প্রয়োজনীয় সাহায্য পায়নি রাজ্যের থেকে। তাদের সঙ্গে অসহযোগিতা করা হয়েছে”।

ভোট-পরবর্তী হিংসা নিয়ে মামলা

রাজ্যে ভোট-পরবর্তী হিংসার বিষয় খতিয়ে দেখতে কলকাতা হাইকোর্টের হস্তক্ষেপ চেয়ে প্রথমে একটি মামলা করেছিলেন আইনজীবী অনিন্দ্য সুন্দর দাস। এ ছাড়া ভোটের পরে অশান্তির অভিযোগে এন্টালির পরাজিত বিজেপি প্রার্থী প্রিয়ঙ্কা টিবরেওয়াল-সহ একাধিক ব্যক্তি কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেন। শুক্রবার সেইসব মামলার একত্রে শুনানি হয়।

এর আগে ৩১ মে ভোট পরবর্তী হিংসায় ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরাতে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করে কলকাতা হাইকোর্ট। প্রাথমিক ভাবে বিচারপতিরা মনে করেছেন, স্বাধীন ভাবে সবার বাঁচার অধিকার রয়েছে। সন্ত্রাসের কারণে কারও নিজের ঘরে ঢুকতে না পারার ঘটনা কাম্য নয়। তাই ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরাতে প্রশাসনকে যাবতীয় উদ্যোগ নেওয়ার কথা জানিয়েছিল হাইকোর্ট।

শেষ শুনানিতে হাইকোর্ট জানায়, আগামী ৩০ জুনের মধ্যে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনেরদলটিকে আদালতে রিপোর্ট জমা দিতে। তার আগেই নির্দেশ পুনর্বিবেচনার আর্জি জানাল রাজ্য সরকার।

আরও পড়তে পারেন: এ ধরনের ভোট-পরবর্তী হিংসার ঘটনা স্বাধীনতার পর এই প্রথম, অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক সেরে মন্তব্য জগদীপ ধনখরের

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন