আয়ুষ্মান ভারতের পর কেন্দ্রের আরও এক জনকল্যাণমূলক প্রকল্প থেকে সরে এল রাজ্য

0
mamata banerjee and narendra modi
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং নরেন্দ্র মোদী।

ওয়েবডেস্ক: আয়ুষ্মান ভারতের পর এ বার কৃষি সম্মান নিধি যোজনা। কেন্দ্রের আরও এক জনকল্যাণমূলক প্রকল্প থেকে সরে এসেছে পশ্চিমবঙ্গ। এর ফলে ফের মাথাচাড়া দিল কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত।

এই নিয়ে নয়াদিল্লিতে বুধবার উষ্মা প্রকাশ করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর। তার পালটা হিসাবে পাল্টা রাজ্য জানিয়েছে, পশ্চিমবঙ্গের নিজস্ব প্রকল্প চালু রয়েছে। যদিও বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের দাবি, ইচ্ছাকৃত ভাবে রাজ্যের কৃষকদের বঞ্চিত করা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী কৃষি সম্মান নিধি যোজনায় তিনটি কিস্তিতে বছরে ৬ হাজার টাকা করে পান কৃষকরা। ইতিমধ্যেই ৬ হাজার কৃষক উপকৃত হয়েছেন দাবি করেছেন প্রকাশ জাভড়েকরের।

পশ্চিমবঙ্গ এই প্রকল্পে সামিল না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন জাভড়েকর। তিনি বলেন, ”পশ্চিমবঙ্গের সিদ্ধান্তের জেরে বঞ্চিত হবেন রাজ্যের কৃষকরা।”  প্রধানমন্ত্রী কৃষি সম্মান নিধি যোজনায় আধার কার্ড সংযুক্তিকরণের সময়সীমা বাড়ানোর কথাও ঘোষণা করেছেন প্রকাশ জাভড়েকর।

যদিও রাজ্যের পালটা দাবি, কেন্দ্রীয় সরকারের ঘোষণার অনেক আগে থেকেই রাজ্যে এমন প্রকল্প চালু রয়েছে। কৃষি অধিকর্তা প্রদীপ মজুমদার বলেন, ”আমরা কৃষকবন্ধু প্রকল্পে বছরে ৫ হাজার টাকা করে কৃষক ও বর্গাদারদের দিই।”

প্রদীপবাবুর পালটা দাবি, গোটা দেশে ৫ শতাংশ কৃষককেও এই প্রকল্পের আওতায় আনা হয়নি। অনেক রাজ্যই তাই প্রকল্পে শামিল হচ্ছে না। আমরা নিজেরাই প্রকল্প চালাব।”

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের কথায়, ”এটাই প্রথম নয়। এর আগেও কেন্দ্রীয় প্রকল্প থেকে মানুষকে বঞ্চিত করেছে রাজ্য সরকার। গরিব কৃষকদের নিয়ে ভাবিত নন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।”

লোকসভা ভোটের আগে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প নিয়েও সংঘাত হয়েছিল কেন্দ্র ও রাজ্যের। ভোটের প্রচারে নরেন্দ্র মোদী নিয়ম করে বলে গিয়েছিলেন, রাজ্য সরকার গরিবদের স্বাস্থ্য পরিষেবা থেকে বঞ্চিত করছে।

আরও পড়ুন ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষের জন্য ইপিএফের সুদের হার ৮.৬৫ শতাংশে উন্নীত হল

যদিও তৃণমূলের পালটা দাবি ছিল, আয়ুষ্মান ভারতের অনেক আগে থেকেই স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প চালু রয়েছে রাজ্যের। ফলে কেন্দ্রীয় প্রকল্পে শামিল হওয়ার কোনো প্রশ্নই নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.