কলকাতা: ২৭ ফেব্রুয়ারি রাজ্যের ১০৮ পুরসভায় ভোটগ্রহণ। জেলাগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি পুরসভা রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনায়, ২৫টি। এগুলোর মধ্যে আবার সবসময়ই আলোচনায় উঠে আসে ভাটপাড়া পুরসভা।

বহুবিধ কারণে ‘স্পর্শকাতর’ জায়গা হিসাবে বেছে নেওয়া হয় ভাটপাড়া, জগদ্দলের এলাকাকে। এর আগে বারবার অশান্ত হতে দেখা গেছে ভাটপাড়া জগদ্দলের বিভিন্ন এলাকাকে। তাই পুরভোটের আগে জগদ্দল থানার পুলিশের তরফ থেকে চলছে কড়া নজরদারি।

রাজনৈতিক দিক দিয়ে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহের গড় হিসেবে পরিচিত ভাটপাড়া। বিশেষ করে তৃণমূল ছেড়ে তিনি বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার পর থেকেই প্রায়শই বাঁধে দুই দলের সংঘর্ষ। ২০১৯ সালের লোকসভার পরে যে সাতটি পুরসভার দখল নিয়েছিল বিজেপি, তার মধ্যে ছিল ভাটপাড়াও। তবে সব ক’টিই হাতছাড়া হয় তাদের।

ভাটপাড়া পুরসভার ৩৪ সদস্যর মধ্যে ১৯ জন তৃণমূল কাউন্সিলর ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে গেরুয়া ঝড়ের পর যোগ দিয়েছিলেন বিজেপি-তে। এর পরে আরও কয়েক জন গেরুয়া শিবিরে যোগ দিলে জুন মাসে দেখা যায়, বিজেপি-র দিকে রয়েছেন ২৬ জন সদস্য। কিন্তু কয়েক দিনের মধ্যেই তাঁদের মধ্যে থেকে ১২ জন কাউন্সিলর তৃণমূলে ফিরে আসেন।

ওই ১২ জন কাউন্সিলর ফিরে আসার পর ভাটপাড়া পুরসভায় তৃণমূলের শক্তি বেড়ে গিয়ে ২১ হয়ে যায়। ফলে নিয়ন্ত্রণ চলে যায় তৃণমূলের হাতেই। এর পর পুরসভার মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেলে বসানো হয় প্রশাসক।

২০১৫-য় কোন দলের দখলে ছিল কোন ওয়ার্ড

ওয়ার্ড নম্বর ১: মদনমোহন ঘোষ (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ২: বিভা বিশ্বাস (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ৩: মনোরঞ্জন ভট্টাচার্য (কংগ্রেস)

ওয়ার্ড নম্বর ৪: দুর্বা ভট্টাচার্য (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ৫: মিলি দত্ত (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ৬: শম্পা দে নাথ (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ৭: প্রমোদকুমার সিং (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ৮: মহম্মদ মকসুদ আলম (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ৯: জ্যোতি সাউ (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ১০: মনোজ গুহ (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ১১: সোহনপ্রসাদ চৌধুরি (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ১২: গীতাদেবী যাদব (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ১৩: লালন চৌধুরি (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ১৪: মহম্মদ নাসিরউদ্দিন খান (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ১৫: সীমা মণ্ডল (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ১৬: রেখা সাউ (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ১৭: অর্জুন সিংহ (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ১৮:অনিলকুমার সিংহ (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ১৯: কমলা আগরওয়াল (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ২০: সৌরভ সিংহ (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ২১: সুনীল নিয়োগী (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ২২: খুশবুঁ নিশা (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ২৩: সত্যেন রায় (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ২৪: হিমাংশু সরকার (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ২৫: অরুণকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ২৬: অদিতি সরকার (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ২৭: সোমনাথ তালুকদার (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ২৮: বিশ্বনাথ ঘোষ (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ২৯: শিবানী মণ্ডল (সিপিএম)

ওয়ার্ড নম্বর ৩০: প্রবীর বৈদ্য (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ৩১: কল্পনা লাহিড়ী (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ৩২: পল্লবী কুণ্ডু দাস (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ৩৩: শঙ্করী দত্ত (কংগ্রেস)

ওয়ার্ড নম্বর ৩৪: দেবপ্রসাদ সরকার (তৃণমূল)

ওয়ার্ড নম্বর ৩৫: বিমান বসু (তৃণমূল)

আরও পড়তে পারেন: ২৭ ফেব্রুয়ারি ১০৮ পুরসভায় ভোট, কোন জেলায় কোন পুরসভায় নির্বাচন, রইল বিস্তারিত

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন