vote

ওয়েবডেস্ক: কোথাও বুথ জ্যাম আবার কোথাও বুথ থেকে উধাও ব্যালট, ভোটার এমনকী  প্রিসাইডিং অফিসার, ভোট কর্মীও। তবুও ২০ জেলার অধিকাংশ বুথেই নেমেছে ভোটারের ঢল। এরই মাঝে দৃষ্টান্ত তৈরি করল নদিয়ার শান্তিপুর এবং হুগলির তারকেশ্বর।

নদিয়ার শান্তিপুরে বিবেকানন্দ উচ্চ বিদ্যালয়ের বুথ সংলগ্ন এলাকায় ঢুকেছিল এক দল বাইক বাহিনী। পুলিশ বা নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণের আগেই ময়দানে নেমে পড়েন ভোটাররা। পার্শ্ববর্তী একটি বাগানে রাখা ১২টি বাইকে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। পুলিশ আসার আগেই তা ভস্মীভূত হয়ে যায়। ভোটাররাই দায় স্বীকার করে জানিয়েছেন, তাঁরা গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে চান। বহিরাগতদের সবক শেখাতে তাঁরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব নিজেদের হাতেই তুলে নিয়েছেন। তবে সকাল ১০টা পর্যন্ত ওই বুথে ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়া বন্ধ রয়েছে।

অন্য দিকে ফিল্মি কায়দায় অভিযান চালিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন হুগলির তারকেশ্বর থানার ওসি অমিত মিত্র। কখনো বুথের সামনে আবার কখনো রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে তিনি রীতিমতো সিনেমার সংলাপে ভোট-বাজার গরম করলেন। রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের বুথের সামনে জটলা করতে দেখে তিনি হুমকি দিলেন-“এখানে যদি আমাকে দ্বিতীয়বার আসতে হয় তা হলে  জ্বালিয়ে দিয়ে যাব। গেট আউট”।

আরও পড়ুন: পঞ্চায়েত লাইভ

আবার তৃণমূলের পতাকা লাগানো অটো রিকশা থেকে সওয়ারিদের নামিয়ে দিলেন। অটোচালককে দিয়ে খোলালেন পতাকা। গাড়ির নম্বর নিয়ে বললেন, “দ্বিতীয়বার দেখলে ফল ভালো হবে না”। এমনকী বাইকে একের বেশি সওয়ারিকে দেখলেও রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে নিজের হাতে করলেন তল্লাশি এবং জিজ্ঞাসাবাদ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here