রাজ্য বিধানসভাতেও সিএএ বিরোধী প্রস্তাব, বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

0
Mamata Banerjee

ওয়েবডেস্ক: কেরল ও পঞ্জাবে সিএএ বিরোধী প্রস্তাব পাশ হয়ে গিয়েছে। এ বার কি সেই তালিকায় নাম লেখাতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ?

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিন্তু সেই দিকেই ইঙ্গিত করেছেন। এই প্রসঙ্গে সোমবার মমতা বলেন, “সব রাজ্যেরই উচিত বিধানসভায় সিএএ-এর বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাশ করা।”

তিন-চার দিনের মধ্যেই এই প্রস্তাব রাজ্যের বিধানসভায় পাশ হবে বলেও জানান মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, “বিরোধী দলগুলি রাজি থাকলে আমরা এ নিয়ে একটি বৈঠক করব।”

শুধু নিজের রাজ্যেই নয়, দেশের অন্যান্য রাজ্যের সরকারের প্রতিও একই কাজ করার আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। অন্য রাজ্যগুলির কাছে মমতার আর্জি, “সিএএ-এর বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাশ করার জন্য সব রাজ্যের কাছে আবেদন জানাচ্ছি।”

আরও পড়ুন বসন্ত উৎসবে বহিরাগতদের ‘বেলেল্লাপনা’ ঠেকাতে বিশ্বভারতীর বেনজির সিদ্ধান্ত জন্ম দিল নতুন বিতর্কের

দিনদুয়েক আগেই কংগ্রেস শাসিত বিধানসভায় নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাশ করেছে পঞ্জাব সরকার। কেরলের পর দেশের মধ্যে পঞ্জাব দ্বিতীয় রাজ্য যারা সিএএ-এর বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাশ করে বিধানসভায়।

একই পথে হাঁটার পরিকল্পনা করেছে মহারাষ্ট্রও। কংগ্রেসের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের তরফেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যে কংগ্রেসশাসিত সব রাজ্য বিধানসভাতেই এই আইনের বিরুদ্ধে প্রস্তাব আনতে হবে।

উল্লেখ্য, কিছু দিন আগেই বাম-কংগ্রেসের তরফে এই আইনের বিরুদ্ধে প্রস্তাব নিয়ে আসার চেষ্টা করা হলে, বিধানসভায় তা খারিজ করে দেন অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই ঘটনার পরে যথেষ্ট বিতর্কেরও সৃষ্টি হয়। বাম-কংগ্রেসের অভিযোগ ছিল, নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় সচেষ্ট নন মুখ্যমন্ত্রী।

------------------------------------------------
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.