মেদিনীপুর: স্বাস্থ্যসাথী কার্ড ফিরিয়ে দিলে সংশ্লিষ্ট হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিল হয়ে যাবে। এমনকি সেই হাসপাতালের বিরুদ্ধে থানায় এফআইআরও করতে হবে। মঙ্গলবার পশ্চিম মেদিনীপুরে প্রশাসনিক বৈঠকে পুলিশ ও প্রশাসনকে এমনই নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ দিনের সভায় মমতা বলেন, ”এ বার ‘স্বাস্থ্যসাথী’ কার্ড ফেরানো হলে সঙ্গে সঙ্গে থানায় এফআইআর করুন। পুলিশও তৎক্ষণাৎ অভিযোগ খতিয়ে দেখে পদক্ষেপ নিক।”

মঙ্গলবার পশ্চিম মেদিনীপুরে প্রশাসনিক পর্যালোচনা বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে জনপ্রতিনিধিরা তাঁর কাছে অভিযোগ জানান, অনেক হাসপাতালই অপারেশনের সময় ‘স্বাস্থ্যসাথী’ কার্ড প্রত্যাখ্যান করছে, নানা টালবাহানায় সমস্যায় পড়ছেন রোগী ও তাঁর পরিবার। সময়মত অস্ত্রোপচার না হলে রোগীকে বাঁচানো সম্ভব হবে না বলেও জানান তাঁরা। শুধু বেসরকারি হাসপাতালই নয়, অনেক সময় সরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধেও এই অভিযোগ উঠেছে।

এসব শুনে মুখ্যমন্ত্রী কড়া নির্দেশ দেন, ”এসব ক্ষেত্রে থানায় এফআইআর দায়ের করতে হবে। কেন চিকিৎসা হল না, সেটা থানাকেও পর্যবেক্ষণ করতে হবে। কার্ডের উপর হেল্পলাইন নম্বর রয়েছে। তাতেও ফোন করে অভিযোগ জানাতে হবে। এই কার্ডের কোনো রিনিউয়াল করাতে হয় না। মিথ্যে বললে হাসপাতালের লাইসেন্স কেটে নেওয়া হবে। অবশ্যই অভিযোগ করবেন।”

আরও পড়তে পারেন:

‘পূর্ত দফতরের এত চাহিদা কেন, ওদের দিয়ে সব কাজ করানোর দরকার নেই’, প্রশাসনিক সভায় ক্ষুব্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

সুপ্রিম কোর্টে স্বস্তি অভিষেকের! কয়লা পাচার মামলায় কলকাতায় জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ ইডি-কে

আইপিও-তে ঝড় তুলেছিল এলআইসি, স্টক এক্সচেঞ্জে আত্মপ্রকাশ কী ভাবে

মূল সুদের হার আবারও বাড়াতে পারে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক, বলছে এসবিআই রিপোর্ট

‘অযৌক্তিক!’ কাশ্মীর নিয়ে ওআইসির মন্তব্য উড়িয়ে দিল ভারত

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন