১৮ ঘণ্টা হাসপাতালের মেঝেতে শুয়ে, বেড পেলেন প্রাক্তন বাম বিধায়ক

0

মেদিনীপুর: রবিবার বিকেলে গলব্লাডার স্টোন অপারেশনের জন্য বিনপুরের প্রাক্তন বিধায়ক এবং বর্ষীয়ান বাম নেতা দিবাকর হাঁসদাকে ভরতি করা হয় মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মেল সার্জিকাল ওয়ার্ডে। তবে অত্যধিক রোগীর চাপ থাকায় শয্যা মেলেনি তাঁর। নিজের গ্যাঁটের কড়ি খরচ করে প্লাস্টিক কিনে মেঝেতেই স্যালাইন নিতে হয় তাঁকে।

বেড না পেয়ে তাঁর ঠাঁই হয়েছিল মাটিতেই। শয্যার অভাবে মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের মেঝেতে পড়েছিলেন তিনি। মেঝেতে শুয়েই তাঁর স্যালাইন চলছিল। আর সেই খবর প্রচার হওয়ার প্রায় ১৮ ঘণ্টা পর বেড পেলেন তিনি। অবশেষে হাসপাতালের সার্জিক্যাল ওয়ার্ডে তিনি বেড পেয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১১ সাল থেকে ২০১৬, ৫ বছর বিনপুরের বিধায়ক পদ সামলেছেন বর্ষীয়ান বাম নেতা দিবাকর হাঁসদা। স্বাস্থ্য বিভাগের সরাসরি কোনও দায়িত্বে না থাকলেও বরাবর ঝাড়গ্রাম সহ প্রত্যন্ত জঙ্গলমহলের রোগীদের পাশে থেকেছেন তিনি। রোগীরা বেড না পেলে হাসপাতালের সুপারের কাছে তদ্বির করেছেন বেডের জন্য। এখন অবশ্য ভোলবদল হয়েছে হাসপাতালের।

হাসপাতালের মেঝেতে শুয়েই দিবাকর হাঁসদার প্রশ্ন, “সরকার যে উন্নয়নের দাবি করে, এটাই কি সেই উন্নয়নের নমুনা!”

মঙ্গলবার বেড পাওয়ার পর সংবাদ মাধ্যমের কাছে তিনি বলেন, “হাসপাতালের এই অবস্থা দেখে আমি বাধ্য হয়েছিলাম বিষয়টি সোশ্যাল মিডিয়ায় দিতে। তার পরই ব্যবস্থা নেওয়া হয়। অবশেষে আমি বেড পেয়েছি। অস্ত্রোপচারের জন্য আমাকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।”

আরও পড়তে পারেন:

৫ জুলাইয়ের মধ্যে মহারাষ্ট্রে নতুন সরকার? তৎপরতা শুরু বিজেপি ও শিন্ডে শিবিরে

এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় নয়া মোড়! সিবিআই-এর পর এফআইআর ইডি-র

মুম্বইয়ে ফের ভেঙে পড়ল বহুতল, একজনের মৃত্যু

দু’বার মুখ্যমন্ত্রিত্ব ছাড়তে চেয়েছিলেন উদ্ধব, ঠেকান এক নেতা: সূত্র

টেক্সাসে একটি ট্রাক থেকে উদ্ধার ৪২ জনের মরদেহ, সকলেই অভিবাসী

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন