খবর অনলাইন ডেস্ক: গত ১৯ ডিসেম্বর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর রবিবার পশ্চিম মেদিনীপুরে রাজনৈতিক কর্মসূচিতে যোগ দিলেন শুভেন্দু অধিকারী। এ দিন দাঁতন পেট্রোল পাম্প থেকে সরাই বাজার পর্যন্ত রোড শোয়ে অংশ নেন তিনি।

প্রথম গাড়িতে চড়ে কর্মসূচিতে যোগ দেন শুভেন্দু। সেখান থেকেই “কৃষ্ণ কৃষ্ণ হরে হরে/ বিজেপি ঘরে ঘরে, তোলাবাজ ভাইপো হঠাও, উম্পুনের টাকা চোরদের হঠাও” ইত্যাদি স্লোগান তোলেন। রোড শো শেষে পথসভায় বক্তৃতা করেন তিনি।

Loading videos...

শুভেন্দু যা বললেন

*আমি এক জন সচেতন নাগরিক। ছিন্নমূলের লোকেরা এখন বড়ো বড়ো কথা বলছেন। আমি তো ভিতরে ছিলাম তো, দেখতে দেখতে আমার ঘেন্না ধরে গিয়েছে। কী ভাবে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্পগুলোর নাম পরিবর্তন করে দিয়েছে। কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলোকে আটকে দিয়েছে। সবুজ সাথীতে খারাপ সাইকেল দিয়েছে।

*২০০৩ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূল উঠে গিয়েছিল। ২০০৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে সাংসদ একে গিয়ে ঠেকে। ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের ফলাফল বেরনোর পর সব তৃণমূল নেতা মোবাইলের সুইচ অফ করে দিয়েছিলেন।

*তৃণমূলের এক সাংসদ বলেছেন মেদিনীপুরে বিশ্বাসঘাতক জন্মায়। বিদ্যাসাগর, মাতঙ্গিনীর জন্ম মেদিনীপুরে। এক জন ভোটার হিসেবে আমার অধিকার রয়েছে অন্য দলে যোগ দেওয়ার। যাঁরা এ কথা বলছেন, তাঁদের জবাব দিতে হবে।

*বিধানসভার ভোট রাজ্য পুলিশে হবে না, কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে হবে।

*আমাকে টাইট দেওয়ার পর তৃণমুল যুব কংগ্রেস থাকতেও তৃণমূল যুবা তৈরি হল। তার প্রেসিডেন্ট কে? ভাইপো।

*কী ভাবে ডায়মন্ড হারবারে আপনি (অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়) জিতেছিলেন, তা বাংলার মানুষ জানেন।

*দক্ষিণ কলকাতা চার-পাঁচটা লোকের হাতে রাজ্যের সমস্ত মন্ত্রিত্ব। আমরা কি বানের জলে ভেসে এসেছি? এই লড়াইটা গ্রামের, জেলার। উত্তর কলকাতার বাসিন্দাদের বলছি, গ্রামের সঙ্গে আসুন, আপনাদের জেলার মাত্র পাঁচটা মন্ত্রী পেয়েছে।

আমি আগামী ৪ জানুয়ারি আবার জেলায় আসব। গড়বেতায় আসব। কলকাতা এবং দিল্লিতে একই সরকার চাই। শিল্প হাসবে, কৃষক বাঁচবে।

*রাজ্য মন্ত্রিসভায় এক জনেরই পোস্ট, বাকি সব ল্যাম্পপোস্ট। আমি ল্যাম্পপোস্ট ছিলাম। যখন বললে তাড়ানো যাবে, তখনই প্রতিবাদ করেছি। আমি বিদ্য়াসাগরের দেশের লোক, মাথায় বুদ্ধিসুদ্ধি রয়েছে।

*ভাষা সংযত করুন, নইলে ১৫ মের পর আবার তো ফোন করতে হবে। বাঁচাতে বলবেন। তাই নিজেদের সংযত করুন। পশ্চিম মেদিনীপুরের মাটি, বিজেপির ঘাঁটি। এ বার, রাজ্যে দু’শো পার।

আরও পড়তে পারেন: নিজের ঘরেই পারেননি, বাংলায় কী করে পদ্ম ফোটাবেন, শুভেন্দু অধিকারীকে নিশানা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.