নেতাই যাওয়ার পথে পুলিশের বাধা শুভেন্দুকে, গর্জে উঠলেন বিরোধী দলনেতা

0

পশ্চিম মেদিনীপুর: নেতাইয়ে শহিদ স্মরণে যোগ দিতে যাওয়ার পথে শুক্রবার শুভেন্দু অধিকারীকে আটকাল পুলিশ। পুলিশের সঙ্গে প্রায় ২৫ মিনিট ধরে চলে বচসা। বিরোধী দলনেতা পরে নেতাইয়ের বদলে ভীমপুরে কর্মসূচি পালন করে।

এ দিন নেতাই থেকে প্রায় ১০ কিমি দূরে ঝিটকার জঙ্গলের কাছে শুভেন্দুকে আটকায় পুলিশ। তিনি বলেন, “হাইকোর্টের আদেশ নিয়েই এখানে এসেছিলাম, পুলিশ বাধা দিয়েছে। আমি পাঁচ জনকে নিয়ে যেতে চেয়েছিলাম, এমনকী একাই নেতাইয়ে ঢুকতে চেয়েছিলাম, কিন্তু পুলিশ অনুমতি দেয়নি”।

২০১১ সালে নেতাইয়ে গণহত্য়ার ঘটনার পর প্রতি বছর ৭ জানুয়ারি শহিদ বেদিতে মাল্যদান করেন শুভেন্দু। কথা বলেন শহিদ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে। কিন্তু এত দিন শাসক দলের নেতা হিসেবে তাঁর এই কর্মসূচি মসৃণ ভাবে চললেও এ বার বিরোধী দলনেতা হিসেবে তার স্থান পরিবর্তন করতে হল বলে জানিয়েছেন শুভেন্দু ঘনিষ্ঠরা।

শুভেন্দু বলেন, “শহিদ পরিবারের সঙ্গে আমার আত্মিক সম্পর্ক। ন’টা শহিদ পরিবার, আহতদের পরিবার আমার জন্যে অপেক্ষা করে রয়েছে। প্রত্যেক বছর শীতের সময় আমি তাদের শাল দিই, সামান্য সাহায্যও করি”।

পুলিশকে উদ্দেশ্য করে সুর চড়ান শুভেন্দু। বলেন, “আপনাদের গায়ে মানুষের রক্ত আছে বলে মনে হয় না। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। পুরো পশ্চিমবঙ্গটাকে একেবারে পাকিস্তান বানিয়ে ছাড়লেন”।

তবে ঝাড়গ্রামের পুলিশ সুপার বিশ্বজিৎ ঘোষ সংবাদ মাধ্যমের কাছে বলেন, “গ্রামে আরেকটি অনুষ্ঠান চলছিল বলে ওঁকে একটু অপেক্ষা করতে বলা হয়েছিল। কিন্তু উনি অপেক্ষা না করেই চলে গিয়েছেন”। উল্লেখ্য, এলাকায় এ দিন শহিদ তর্পণ দিবস পালন করে তৃণমূল। সেখানে উপস্থিত ছিলেন সেচমন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র, ক্ষুদ্র কুটির শিল্প ও বস্ত্র দফতরের প্রতিমন্ত্রী শ্রীকান্ত মাহাতো, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদের সহ-সভাধিপতি বিধায়ক অজিত মাইতি-সহ আরও অনেকে।

আরও পড়তে পারেন:

বিদেশ ফেরতদের ৭ দিনের কোয়ারান্টিন বাধ্যতামূলক, নয়া নির্দেশিকা কেন্দ্রের

টিকা-তরজায় মোদী-মমতা! ‘১১ কোটি ডোজ দিয়েছি’, দাবি প্রধানমন্ত্রীর, ‘৪০ শতাংশ এখনও পাইনি’, অনুযোগ মুখ্যমন্ত্রীর

গঙ্গাসাগর মেলা করার অনুমতি দিল কলকাতা হাইকোর্ট, শর্ত না মানলে মেলা বাতিল

পঞ্জাবে প্রধানমন্ত্রী মোদীর নিরাপত্তায় গাফিলতি! বিশেষ নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

চিকিৎসকদের জন্য বড়ো স্বস্তি, নিট-পিজি ভরতির অনুমতি দিল সুপ্রিম কোর্ট

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন