rajnath singh

কলকাতা: রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচনের সন্ত্রাসের আবহে দ্রুত বদলে যাচ্ছে রাজনৈতিক সমীকরণ। মঙ্গলবার কলকাতা হাইকোর্ট মনোনয়ন-মামলা পুরোপুরি রাজ্য নির্বাচন কমিশনের উপর ছেড়ে দেওয়ার পরই জাতীয় কংগ্রেস এবং সিপিএমের উচ্চ নেতৃত্ব নীচুতলায় অলিখিত জোটের কথা প্রকাশ্যে স্বীকার করে নিচ্ছেন। অন্য দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংকে লেখা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরীর চিঠি নিয়েও শুরু হয়েছে তোলপাড়। কী লিখেছেন অধীরবাবু?

সংবাদ মাধ্যমের কাছে অধীরবাবু বলেন, “আমি রাজনাথ সিংকে এ বিষয়ে (রাষ্ট্রপতির শাসন সম্পর্কে) লিখিত আবেদন করেছি, এর বাইরে বাংলায় কোন ভাবেই গণতন্ত্র ফিরবে না”। তিনি মনে করেন, রাষ্ট্রপতি শাসন জারি না করলে কোনো মানুষই নিজের গণতান্ত্রিক অধিকার বজায় রাখতে পারবে না। বর্তমান রাজ্য সরকার পরিস্থিতিতে তেমন জায়গাতেই নিয়ে গিয়েছে।

তবে তিনি কি এ ব্যাপারে দলের হাইকম্যান্ডের পরামর্শ নিয়েছেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে অধীরবাবু বলেন, রাহুল গান্ধী তাঁকে এ ব্যাপারে এগিয়ে যেতে বলেছেন। রাজ্য নির্বাচন কমিশন ভোটের নির্ঘণ্ট পেশ করার পর থেকেই সারা রাজ্যে নিরন্তর ঘটে চলেছে হিংসাত্মক কার্যকলাপ। এ ক্ষেত্রে কংগ্রেস, সিপিএম এবং বিজেপির তরফে এক যোগে কাঠগড়ায় তোলা হয়েছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে। সুপ্রিম কোর্ট থেকে হাইকোর্টে একের পর এক শুনানির পর রায় ঘোষণা হলেও কমিশন এখনও পর্যন্ত নতুন ভোটসূচি ঘোষণা করতে পারেনি। এমন অবস্থায় রাজনাথের কাছে রাষ্ট্রপতি শাসন চেয়ে অধীরবাবুর পত্রপ্রেরণ যথেষ্ট ইঙ্গিতবাহী বলেই মনে করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here