high court whatsapp

ওয়েবডেস্ক: ভাঙড় বিধানসভা এলাকায় ভাঙড়-২ ব্লকের পোলেরহাট ২ গ্রাম পঞ্চায়েতে ‘জমি জীবিকা বাস্তুতন্ত্র ও পরিবেশ রক্ষা কমিটি’র আট প্রার্থীর মধ্যে জিতলেন পাঁচ জন। এই আসনগুলিতে নির্দল হিসাবে মনোনয়ন জমা করার সময় বাধাপ্রাপ্ত হয়ে প্রার্থীরা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে মনোনয়ন জমা করেন। পরে সেই মামলা হাইকোর্টে গেলে আদালত মনোনয়নগুলিকে বৈধ হিসাবে গণ্য করে নির্বাচন কমিশনকে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেয়।

আরও পড়ুন: হোয়াটসঅ্যাপে পাঠানো মনোনয়ন জমা নিন, নচেৎ…, হুঁশিয়ারি হাইকোর্টের

নির্দল প্রার্থীদের অভিযোগ, এ বারের নির্বাচনে  ওই পাঁচটি আসনে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হলেও বাকি তিনটি আসনে দুষ্কৃতী, শাসকদল এবং পুলিশ প্রশাসনের যোগসাজশে বুথ দখল করা হয়। সাধারণ ভোটদাতা ভোটকেন্দ্রের চৌহদ্দির মধ্যে পৌঁছোতে পারেননি। যে পাঁচটি আসনে সাধারণ মানুষ ভোটদান করেছেন, সেই সব আসনে ‘জমি জীবিকা বাস্তুতন্ত্র ও পরিবেশ রক্ষা কমিটি’র মনোনীত প্রার্থীরা বিপুল সমর্থনে জয়যুক্ত হয়েছেন। এই জয় ধারাবাহিক লাগামছাড়া ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে জয়।

তাঁরা বলেন, “এই আসনগুলিতে প্রচুর লড়াই করে বহু প্রতিবন্ধকতা পার হয়ে হাইকোর্টের হস্তক্ষেপে হোয়াটস্আ্যপ মাধ্যমে প্রার্থী হতে পেরেছিলাম। নির্বাচনী সংগ্রামে হাফিজুর রহমান মোল্লা শহিদ হন। প্রার্থী এবং প্রথম শহিদ মফিজুল খানের ভাই এন্তাজুল খান গুরুতর আহত হন। বহু সাধারণ গ্রামবাসী আহত হন এবং সন্ত্রাসের শিকার হন।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here