খবরঅনলাইন ডেস্ক: পশ্চিমী ঝঞ্ঝা এবং উচ্চচাপ বলয়ের জোড়া হানায় রাজ্যের সর্বত্র সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করেছে। শুক্রবার কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বেড়ে সাড়ে ১৬ ডিগ্রি হয়ে গিয়েছে।

দু’ দিন আগেই কলকাতার তাপমাত্রা ১৫.৪ ডিগ্রিতে নেমে গিয়েছিল। পারদ ফের ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় শীতের অনুভূতি এখনও সে ভাবে আসছে না। হতাশার খবর হল, আগামী অন্তত এক সপ্তাহ পারদ কমার কোনো সম্ভাবনা নেই।

নভেম্বরের শেষে তামিলনাড়ুতে হানা দেওয়া ঘূর্ণিঝড়ের নীবরের প্রভাব দক্ষিণবঙ্গে পড়েছিল। আকাশে মেঘ ঢুকেছিল। হালকা বৃষ্টি হয়েছিল কোথাও কোথাও। কিন্তু বর্তমানে দক্ষিণ তামিলনাড়ুতে হানা দেওয়া ঘূর্ণিঝড় বুরেভি (যা তামিলনাড়ু উপকূল অতিক্রম করার আগেই গভীর নিম্নচাপে দুর্বল হয়ে গিয়েছে)-এর কোনো প্রভাব কিন্তু দক্ষিণবঙ্গে পড়েনি।

এখানে শীতে বাধা সৃষ্টি করছে পশ্চিমবঙ্গ উপকূলের কাছেই থাকা একটি উচ্চচাপ বলয়। এর ফলে সাগর থেকে জলীয় বাষ্প ঢুকছে গোটা রাজ্যে। এ ছাড়া উত্তর ভারতে একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝা রয়েছে। এর ফলে উত্তুরে হাওয়া পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গিয়েছে।

ডিসেম্বর পড়ার আগেই তিন দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা দশের নীচে রেকর্ড করেছে পানাগড়। সেই পানাগড়ে এ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পশ্চিমাঞ্চলের বেশির ভাগ জায়গাতেই তাপমাত্রা ১৩-১৪ ডিগ্রিতে উঠে গিয়েছে।

শীত উধাও হয়ে গিয়েছে উত্তরবঙ্গেও। শিলিগুড়িতে এ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৪.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কোচবিহার আর জলপাইগুড়িতে তা ১২.১ ডিগ্রি এবং ১৪.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দার্জিলিংয়ে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৭ ডিগ্রির বেশি নামছে না।

তবে উত্তরবঙ্গে এখন বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। যে উচ্চচাপ বলয়ের প্রভাবে রাজ্যে মেঘ ঢুকছে, তার প্রভাবেই বৃষ্টি হতে পারে উত্তরের সর্বত্র। এমনকি দার্জিলিং জেলার উঁচু এলাকাগুলি, অর্থাৎ সিঙ্গালিলা অঞ্চলে মরশুমের প্রথম তুষারপাতও হতে পারে। দার্জিলিং শহরে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।

আগামী অন্তত এক সপ্তাহ আবহাওয়ায় এ রকম স্থিতাবস্থাই বজায় থাকবে গোটা রাজ্যে। অর্থাৎ উত্তরবঙ্গে দফায় দফায় হালকা বৃষ্টি হতে থাকবে আর দক্ষিণবঙ্গে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা যেখানে আছে, সেখানেই আটকে থাকবে।

তবে ৮-৯ দিন পর জব্বর শীতের সম্ভাবনা রয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতি বিচার করে এটা আন্দাজ করা যায় যে ১৫-১৬ ডিসেম্বর থেকে হাড়কাঁপানো শীত পড়তে পারে গোটা রাজ্যে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

২৪ ডিসেম্বর রাজ্যে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন