রাজ্যের ‘সংকেত’ পেয়ে হাওড়া-শিয়ালদহ ডিভিশনে লোকাল ট্রেন চালানোর চিন্তাভাবনা কেন্দ্রের

0
Sealdah Station

কলকাতা: আবার কবে চলতে পারে বহু দিন বন্ধ থাকা সেই লোকাল ট্রেন? রাজ্যের কাছ থেকে মৃদু ইঙ্গিত মিলতেই শুরু হয়েছে চিন্তাভাবনা।

করোনা আবহে গত মার্চ মাসের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে বন্ধ হয়ে যায় লোকাল ট্রেনের চাকা। বন্ধ হয়ে যায় অগুনতি মানুষের প্রতি দিনের কোলাহল, হকারদের সেই চেনা আওয়াজ। গত বুধবার রাজ্যে লোকাল ট্রেন চালানোর বিষয়ে মৌখিক অনুমতি দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)।

সেই খবরের পরেই তৎপর হয়ে ওঠে শিয়ালদহ ও হাওড়া ডিভিশন। সূত্রের খবর, শুক্রবার এই দু’টো ডিভিশনে ট্রেন চলাচলের বিষয়ে দিল্লিতে বিভিন্ন বিভাগীয় আধিকারিকের সঙ্গে বৈঠকে বসেন ভারতীয় রেল বোর্ডের উচ্চ পর্যায়ের আধিকারিকরা। তবে বৈঠকে কী সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, তা এখনও জানা সম্ভব হয়নি।

তবে শারীরিক দূরত্ব (Social distance) বজায় রেখে কী ভাবে চলবে লোকাল ট্রেন, তা নিয়ে চিন্তা থেকেই যাচ্ছে। শিয়ালদহ শাখায় প্রতি দিন সাড়ে সাতশোর মতো ট্রেন চলে। সে ক্ষেত্রে বনগাঁ, নামখানা, লক্ষ্মীকান্তপুর, সোনারপুর,ক্যানিং,বারুইপুর,হাসনাবাদ, ডায়মন্ডহারবার শাখায় ভিড় চোখে পড়ার মতো। সেগুলি কী ভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে, তা নিয়ে ‘ব্লু প্রিন্ট’ তৈরি হচ্ছে বলে সূত্রের খবর।

রেল সূত্রটি জানিয়েছে, সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে ন্যূনতম ২৫ শতাংশ লোকাল ট্রেন চালানো হতে পারে। অধিকাংশ লোকাল গ্যালোপিন করার ভাবনা রয়েছে। সুরক্ষার দায়িত্বে আরপিএফ কর্মীদের স্টেশনে বা ট্রেনে নজরদারি চালাতে হবে। বিশেষ করে জংশন স্টেশনগুলিতে নজরকাড়া ভিড় রুখতে স্থানীয় পুলিশের সহায়তাও নেওয়া হতে পারে। প্রতিটি স্টেশনে থার্মাল স্ক্যানার, স্যানিটাইজার টানেল বসানোর চিন্তাভাবনা রয়েছে।

এ ছাড়াও বহু দিন ধরে লোকাল ট্রেন বন্ধ থাকায় সেগুলির যান্ত্রিক অবস্থা, সিগন্যালিং সিস্টেম কেমন অবস্থায় রয়েছে, তার দ্রুত পর্যবেক্ষণ করা জরুরি বলে মনে করছেন আধিকারিকরা। স্টেশনে শুধুমাত্র যাত্রী ছাড়া অনধিকার প্রবেশ আটকানোর সঙ্গে সঙ্গে এখনই ট্রেনে ও প্ল্যাটফর্মে হকারদের প্রবেশ আটকানো হতে পারে বলেও খবর।

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, কড়া নিরাপত্তার ঘেরাটোপে লোকাল ট্রেন চালু করা মোটেই মুখের কথা নয়। এখন দেখার রাজ্য-কেন্দ্রের পরিকল্পনায় ফের কবে লোকাল ট্রেনের চাকা গড়ায়!

কী বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়?

শহরতলির ট্রেন এবং মেট্রো চলাচল চালু করতে চাইলে রাজ্যের কোনো আপত্তি নেই বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

গত বুধবার নবান্নে সাংবাদিকদের কাছে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘দূরত্ব-বিধি মেনে মেট্রো চললে আমাদের আপত্তি নেই। লোকাল ট্রেনও চলতে পারে। তবে সব এক সঙ্গে নয়। ধাপে ধাপে চালু হলে ভালো। প্রয়োজনে শুরুতে এক-চতুর্থাংশ ট্রেন চলতে পারে। এ নিয়ে রেল আমাদের সঙ্গে কথা বলতে পারে।’’

বিস্তারিত পড়ুন এখানে ক্লিক করে: “সেপ্টেম্বরে আপাতত তিন দিন সম্পূর্ণ লকডাউন, মেট্রো-লোকাল ট্রেনে আপত্তি নেই”

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন