TMCP

কলকাতা: সব কিছু ঠিকঠাক চললে আগামী ১৫ জুলাইয়ের মধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠন টিএমসিপির নতুন সভাপতি নির্বাচনের কাজ সম্পন্ন হবে। দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এ ব্যাপারে স্বয়ং দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উদ্যোগ নিতে পারেন।

কলেজে ভরতি সমস্যার জেরে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল টিএমসিপির সভানেত্রী জয়া দত্তকে। বাকি সমস্ত পদাধিকারীরা অবশ্য স্বস্থানেই বহাল আছেন। যে কারণে পুরো কমিটি পরিবর্তন না করে হয়তো শুধু মাত্র সভাপতিপদে নতুন কোনো নেতাকে নিয়ে আসা হতে পারে বলেই খবর। কে হতে পারেন ‌টিএমসিপির আগামী সভাপতি?

দলীয় সূত্রে খবর, ভরতি প্রক্রিয়া নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করাই এখন সরকার ও দলের মূল লক্ষ্য। যে কারণে শিক্ষামন্ত্রী থেকে মুখ্যমন্ত্রী বাড়তি উদ্যোগ নিচ্ছেন ভরতির ব্যাপারে। গত শুক্রবারও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে আলিপুর ক্যাম্পাসে পৌঁছে গিয়েছিলেন। সেখানে অভিভাবকদের সঙ্গে তাৎক্ষণিক কথাবার্তাও বলেন। অভিভাবকরা তাঁকে বলেন, সেখানে ভরতি নিয়ে কোনো অসুবিধা হচ্ছে না। এ ভাবেই ভরতি প্রক্রিয়া নির্বিঘ্নে মিটে গেলেই টিএমসিপির নতুন সভাপতি নির্বাচিত হবেন। ছাত্র সংগঠনের সভাপতিপদ নিয়ে মমতার বাড়তি নজরদারির বিষয়টি ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এসেছে। তাঁর সঙ্গে তো নয়-ই, এমনকি দলের উচ্চনেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনা বা পরামর্শ না করে টিএমসিপির একবগ্গা সিদ্ধান্ত ঘোষণা প্রসঙ্গেও বেজায় ক্ষুব্ধ তিনি।

একটি মহল থেকে শোনা যাচ্ছে, আগামী লোকসভা ভোটের আগে ছাত্র সংগঠনের ভূমিকা বজায় রাখতে তৃণমূলের একটি অংশ চাইছে অভিজ্ঞ কোনো নেতাকে এই দায়িত্বে নিয়ে আসা হোক। কারণ, অভিজ্ঞ কাউকে ওই পদে বসিয়ে আপাত ভাবে সংগঠনের সাময়িক নড়বড়ে অবস্থা এখনই মেরামত না করা প্রয়োজন। কারণ সামনে রয়েছে লোকসভা নির্বাচন।

তবে অভিজ্ঞ নেতার নামে এমন কাউকে যেন ফিরিয়ে নিয়ে আসা হয়, যাঁকে নিয়ে সংগঠন অস্বস্তিতে পড়তে পারে, এমনটা দাবি অন্য অংশের। তাঁদের মতে, নতুন কোনো মুখকেই এই দায়িত্ব দেওয়া দরকার।

এখন দেখার, দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এ ব্যাপারে কী সিদ্ধান্ত নেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here