ওয়েবডেস্ক: ভিডিও ভাইরাল হতেই রীতি মতো গা-ঢাকা দিয়েছিলেন আলিপুরদুয়ারের সদ্য প্রাক্তন জেলাশাসক নিখিল নির্মল এবং তাঁর স্ত্রী নন্দিনী কৃষ্ণাণ। এ বার ফেসবুকেও আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না সেই বিতর্কিত ফেসবুক অ্যাকাউন্টটিকে।

সোশাল মিডিয়ায় অশালীন মন্তব্যের অভিযোগ তুলে ফালাকাটা থানায় আটক বিনোদ সরকার নামে এক যুবককে বেধড়ক পেটান নিখিল। সেই ভিডিওই ফের সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। স্ত্রীর সম্মান বাঁচাতে প্রশংসার পারদ চড়তে থাকলেও পরে বাকি ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর তীব্র সমালোচনার সম্মুখীন হন সস্ত্রীক জেলাশাসক। তার পরই তাঁকে ছুটিতে পাঠানো হয়। গত বৃহস্পতিবার নন্দিনীদেবীর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করা দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

শুধু জেলাশাসকের স্ত্রী নন্দিনীই নন, তাঁর দুই বান্ধবী দেবশ্রী দিপ্ত দাস এবং সুকন্যা দেবও তাঁদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। ফেসবুকে সার্চ করলে তাঁদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট আর দেখা যাচ্ছে না।

উল্লেখ্য, ইতি মধ্যেই রাজ্য প্রশাসন আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসকের পদ থেকে নিখিলকে অপসারণ করেছে। তাঁকে পাঠানো হয়েছে আদিবাসী উন্নয়ন পর্ষদে। তবে ওই পদে তাঁর যোগ দেওয়ার ব্যাপারে এখনও কিছু জানা যায়নি। তাঁর বিরুদ্ধে এফআরআই দায়ের করা হয়েছে ফালাকাটা থানার আইসির তরফে। আবার নির্যাতিত যুবকের পরিবারও দাবি করেছে, এ ব্যাপারে কোনো রকমের অভিযোগ না করার জন্য চাপ দেওয়া হয়েছিল।

[ আরও পড়ুন: আইনের শাসন বজায় রাখার ভার যাঁর, তাঁরই আস্থা নেই আইনে! ]

এখন দেখার, ফের কবে প্রকাশ্যে আসেন ২০০৯ সালের ইউপিএসসি পরীক্ষায় ৩৭২ তম স্থান অধিকারকারী ৩২ বছরেরকে এই আধিকারিক!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here