Connect with us

রাজ্য

পেশাগত রোগ সিলিকোসিসে ঝরছে শ্রমিকের প্রাণ! দায় নেবে কে?

সিলিকোসিসে আক্রান্ত হয়ে কী ভাবে মৃত্যুর মুখে ঢলে পড়লেন এক যুবক? পরিবার অথবা বিশেষজ্ঞরাই বা এ বিষয়ে কী বলছেন? দেখুন নীচের ভিডিয়োয়-

Published

on

মূলত পাথর ভাঙার খাদান বা কারখানায় কর্মরত শ্রমিকরাই সাধারণ সিলিকোসিস রোগে আক্রান্ত হন।

ওয়েবডেস্ক: সিলিকোসিসে আক্রান্ত হওয়া শ্রমিকের গড় আয়ু ৩৩ বছর। এ কথা বলছে একটি সমীক্ষা। এক দিকে পরিবারের উপার্জনক্ষম ব্যক্তির রোগাক্রান্ত হয়ে যাওয়া, অন্য দিকে তাঁর চিকিৎসার খরচ বহন করতে গিয়ে সর্বস্বান্ত হয়ে যাওয়া। আর এক দিন চিরতরে ঘুমিয়ে পড়া রোগাক্রান্ত শ্রমিকের। দায় নেবে কে?

বিশেষজ্ঞরা বলেন, সিলিকোসিস পেশাগত রোগ। পাথর খাদানে কাজ করতে গিয়েই শ্রমিকেরা এই রোগে আক্রান্ত হন। সাম্প্রতিককালে উত্তর ২৪ পরগনার সন্দেশখালি, মিনাখাঁ, বীরভূমের বেশ কয়েকটি এলাকা এবং পশ্চিম মেদিনীপুরের নয়াগ্রাম, সাঁকরাইল, কেশিয়াড়ি ও দাঁতনের যুবকেরা পাথর খাদানে কাজে গিয়ে এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। কেউ চিকিৎসাধীন, কেউ বিদায় নিয়েছেন।

সর্বস্বান্ত পরিবারগুলো নিয়োগকারী সংস্থার কাছ থেকে যেমন কোনো রকমের সাহায্য পাননি, তেমন সরকারের তরফে কোনো সদর্থক উদ্যোগ নেই বলে তাঁদের অভিযোগ। যদিও জাতীয় মানবাধিকার কমিশন এবং হাইকোর্ট ক্ষতিপূরণ নির্দেশ আগেই দিয়েছে। কিন্তু তার পরেও কোনো মহল থেকে সঠিক পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ।

এমনও নজির রয়েছে, যেখানে নিয়োগকারী সংস্থার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন রোগীর পরিবার। আবার রাজ্য সরকারের কাছেও দ্বারস্থ হয়েছেন। কেউ ক্ষতিপূরণ পেলেও, কেউ বিমুখ হয়েছেন।

কী এই সিলিকোসিস?

সিলিকোসিস (silicosis) রোগের মূল কারণ ‘ক্রিস্টালাইজড সিলিকা’ বা স্ফোটিকাকৃতি বালি বা পাথরের কণা।

যে সমস্ত জায়গায় বাতাসে এ ধরনের কণার উপস্থিতি বেশি, সেখানে দিনের পর দিন ধরে কাজ করলে ওই বালি অথবা পাথরের কণা ফুসফুসের উপরি ভাগের জমতে থাকে। ধীরে ধীরে ফুসফুসের মারাত্মক ক্ষতি হয়ে সিলিকোসিস রোগ হতে পারে। মূলত পাথর ভাঙার খাদান বা কারখানায় কর্মরত শ্রমিকরাই সাধারণ সিলিকোসিস রোগে আক্রান্ত হন।

সিলিকোসিসের উপসর্গ

বুকে ব্যথা, শ্বাসকষ্ট, জ্বর, শেষ দিকে শরীর নীলাভ হয়ে যাওয়া। হাত-পা শুকিয়ে যেতে থাকে। চিকিৎসকেরা বলেন, সিলিকা ফুসফুসের স্বাভাবিক রোগ প্রতিরোধকারী কোষের (ম্যাক্রোফেজ) কার্যক্ষমতা নষ্ট করে ফেলে। যার ফলে মানব দেহের ফুসফুসে এক ধরনের ক্ষতের সৃষ্টি হয় এবং ফুসফুসের স্বাভাবিক কার্যক্ষমতা হারিয়ে যায়। এই যক্ষা অথবা অন্যান্য ব্যাকটেরিয়াঘটিত রোগে ফুসফুস সহজেই আক্রান্ত হতে পারে।

তবে ভুক্তভোগীদের কাছে বিষয়গুলি মোটেই এতটা সংক্ষিপ্ত অথবা সহজ নয়। সিলিকোসিসে আক্রান্ত হয়ে কী ভাবে মৃত্যুর মুখে ঢলে পড়লেন এক যুবক? পরিবার অথবা বিশেষজ্ঞরাই বা এ বিষয়ে কী বলছেন? দেখুন নীচের ভিডিয়োয়-

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

রাজ্য

জাতীয় গড়ের তুলনায় রাজ্যে সুস্থতার হার অনেকটাই বেশি, কেন্দ্রের প্রশংসা

রাজ্যে সুস্থতার হার ৮৬.৯৬ শতাংশ, জাতীয় গড় ৭৯.২৮ শতাংশ।

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যায় এখনও পর্যন্ত সে ভাবে অবনমন না দেখা গেলেও সুস্থতার হারে ধরা পড়ছে ইতিবাচক ইঙ্গিত। তবে জাতীয় গড়ের তুলনায় পশ্চিমবঙ্গে সুস্থতার হার এখন অনেকটাই উপরে। জানা গিয়েছে, এ বিষয়ে রাজ্যের প্রশংসা করা হয়েছে কেন্দ্রের তরফে।

শনিবার রাতে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে কোভিডে (Covid 19) আক্রান্ত হয়েছেন ৩,১৮৮ জন। এর ফলে রাজ্যে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২ লক্ষ ২১ হাজার ৯৬০। বিস্তারিত পড়ুন এখানে: (সংক্রমণের হারকে আরও কিছুটা কমিয়ে রাজ্যে কমল নতুন কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ল সুস্থতার হার)

শেষ ২৪ ঘণ্টায় পশ্চিমবঙ্গে একই সময়ে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৯৯৩ জন কোভিডরোগী। রাজ্যে সুস্থতার হার আরও কিছুটা বেড়ে ৮৬.৯৬ শতাংশ হয়েছে।

অন্য দিকে গত শনিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৩ হাজার ৩৩৭ জন। ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৩ লক্ষ ৮ হাজার ১৫। বিস্তারিত পড়ুন এখানে: (৯৫ হাজার! ভারতে এক দিনে রেকর্ড সংখ্যক মানুষ কোভিডমুক্ত, কমল সক্রিয় রোগীর সংখ্যা)

শেষ ২৪ ঘণ্টায় ভারতে এক দিনে রেকর্ড সংখ্যক প্রায় ৯৫ হাজার মানুষ কোভিডমুক্ত হয়েছেন। একই সঙ্গে ভারতে সুস্থতার হার বর্তমানে ৭৯.২৮ শতাংশ হয়েছে।

শনিবার ভিডিয়ো-বৈঠকে বিভিন্ন রাজ্যে প্রশাসনের শীর্ষকর্তার সঙ্গে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেন ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌবা।  ১২টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের প্রশাসনিক শীর্ষ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। ওই বৈঠকে পশ্চিমবঙ্গের শীর্ষ আধিকারিকরাও উপস্থিত ছিলেন। সেখানেই পশ্চিমবঙ্গে সুস্থতার হার নিয়ে প্রশংসার পাশাপাশি মৃত্যুহার হ্রাসের ব্যাপারে পরামর্শ দেওয়া হয়।

দেশের মৃত্যুহার যেখানে ১.৬৩ শতাংশ, সেখানে এ রাজ্যের হার ১.৯৪ শতাংশ। তবে রাজ্যের দাবি, মোট মৃত্যুর মধ্যে ৮৬ শতাংশ অন্য রোগভোগ বা কো-মর্বিডিটি থেকে হয়েছে। এই অবস্থায় কেন্দ্রের পরামর্শ, জেলা এবং হাসপাতালভিত্তিক ভাবে মৃত্যুহার যাচাই করে সমস্যা চিহ্নিত করতে হবে। পাশাপাশি, উপসর্গযুক্ত যে রোগীদের র‌্যাপিড পরীক্ষার‌ টেস্টে নেগেটিভ আসছে, তাদের বাধ্যতামূলক ভাবে আরটি-পিসিআর পরীক্ষা করতে হবে।

Continue Reading

রাজ্য

সংক্রমণের হারকে আরও কিছুটা কমিয়ে রাজ্যে কমল নতুন কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ল সুস্থতার হার

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৪৫,৫৬৩টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

Published

on

Covid situation kolkata
রাজ্যে সুস্থতার হার বর্তমানে ৮৬.৯৬ শতাংশ।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রাজ্যে নতুন কোভিড-আক্রান্তের সংখ্যা আরও কিছুটা কমল। তবে টেস্টের সংখ্যা আগের দিনের থেকে আরও কিছুটা বেড়েছে। ফলে সংক্রমণের হার কিছুটা কমল রাজ্যে। পাশাপাশি, রাজ্যে সুস্থতার হারে কিছুটা বৃদ্ধি এসেছে।

রাজ্যের কোভিড-তথ্য

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে কোভিডে (Covid 19) আক্রান্ত হয়েছেন ৩,১৮৮ জন। এর ফলে রাজ্যে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২ লক্ষ ২১ হাজার ৯৬০। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর ফলে রাজ্যে এখন মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪,২৯৮। রাজ্যে মৃত্যুহার বর্তমানে রয়েছে ১.৯৩ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে সুস্থ হয়েছেন ২,৯৯৩ জন। এর ফলে এখনও পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ লক্ষ ৯৩ হাজার ১৪ জন। রাজ্যে বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২৪,৬৪৮। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে সক্রিয় রোগী বেড়েছে ১৩৯ জন। রাজ্যে সুস্থতার হার আরও কিছুটা বেড়ে ৮৬.৯৬ শতাংশ হয়েছে।

সংক্রমণের হার কমেছে

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৪৫,৫৬৩টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। রাজ্যে মোট ২৭ লক্ষ ৪৪ হাজার ৮৬২টি নমুনা পরীক্ষা হল। রাজ্যে বর্তমানে প্রতি দশ লক্ষ মানুষে ৩০,৪৯৮ জনের করোনা পরীক্ষা হচ্ছে।

প্রতি দিন যে সংখ্যক মানুষের পরীক্ষা হচ্ছে, তার মধ্যে যত শতাংশের কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসছে, সেটাকে বলা হচ্ছে ‘পজিটিভিটি রেট’ বা সংক্রমণের হার। শনিবার রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার ছিল ৭ শতাংশ। অন্যদিকে রাজ্যে সামগ্রিক সংক্রমণের হারটি এ দিন ৮.০৯ শতাংশ হয়েছে। এই সংক্রমণের হার জাতীয় গড়ের থেকে বেশ কিছুটা কম রয়েছে।

কলকাতায় কমল সক্রিয় রোগীর সংখ্যা

দু’ দিন পর কলকাতায় নতুন আক্রান্তের সংখ্যা পাঁচশো অতিক্রম করলেও সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কিছুটা কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৪৩ জন। অন্য দিকে সুস্থ হয়েছেন ৫৮৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের।

শহরে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪৯,৬১৩। সুস্থ হয়ে গিয়েছেন ৪৩,৮৪৯ জন। শহরে মোট মৃতের সংখ্যা ১,৫৬৬। বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৪,১৯৮।

পড়শি চার জেলার পরিস্থিত অপরিবর্তিত

কলকাতার পড়শি চারটি জেলায় নতুন আক্রান্তের সংখ্যায় বিশেষ পরিবর্তন হয়নি। মোটের ওপরে পরিস্থিতি স্থিতিশীলই রয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় উত্তর ২৪ পরগণায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫০১ জন। সুস্থ হয়ে ছাড়া পেয়েছেন ৫২০ জন। অন্য দিকে দক্ষিণ ২৪ পরগণায় আক্রান্ত হয়েছেন ২১৬ জন, ছাড়া পেয়েছেন ১৫২ জন। হাওড়ায় ১৮৭ জন নতুন করে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন আর সুস্থ হয়েছেন ১৪৭ জন। অন্য দিকে হুগলিতে ১৬৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন আর ছাড়া পেয়েছেন ১৮৬ জন।

পশ্চিম মেদিনীপুর-সহ কয়েকটি জেলা এখনও উদ্বেগের কারণ

পশ্চিম মেদিনীপুরে কোভিড-আক্রান্তের সংখ্যার ঊর্ধ্বগামী যাত্রা বহাল থাকল শনিবার। নতুন করে এ দিন ২০২ জন কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন এই জেলায়। তবে স্বস্তির খবর হল, এই জেলায় এ দিন ২৩৫ জন সুস্থ হয়েছেন। ফলে এখানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা বেশ কিছুটা কমেছে।

পশ্চিম মেদিনীপুরের পর আক্রান্তের সংখ্যায় এর পরেই ছিল পূর্ব মেদিনীপুর (১৭৩)। নতুন আক্রান্তের এই সংখ্যাটি গত কয়েক দিনের তুলনায় কিছু বেড়েছে।

এই জেলাগুলি ছাড়াও শনিবার যে যে জেলা উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়াল, সেগুলি হল, পশ্চিম বর্ধমান (১০৭), পূর্ব বর্ধমান (১০৫) এবং নদিয়া (১০১)। এ ছাড়াও বীরভূম (৭৭) আর পুরুলিয়াও (৮৪) চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

স্বস্তির বার্তা দিচ্ছে যে যে জেলা

শনিবার গোটা উত্তরবঙ্গই স্বস্তির বার্তা দিল। কোনো জেলাতেই নতুন আক্রান্তের সংখ্যা এ দিন একশো অতিক্রম করেনি। এ ছাড়া বাঁকুড়াতেও নতুন আক্রান্তের সংখ্যা একশোর নীচে নেমে এসেছে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

কলকাতা ও পড়শি জেলায় কোভিড পরিস্থিতি স্থিতিশীল, বেশি উদ্বেগ এখন পশ্চিম মেদিনীপুরকে ঘিরে

Continue Reading

দার্জিলিং

মেলেনি সদর্থক ইঙ্গিত, কর্মবিরতির মেয়াদ বাড়াল জিটিএ-র কর্মী সংগঠন

২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কঠোর ভাবে কর্মবিরতি চালিয়ে যাবে কর্মী সংগঠন।

Published

on

দার্জিলিং: লাগাতার আন্দোলনেও জিটিএ (GTA) কর্তৃপক্ষ কোনো সদর্থক পদক্ষেপ না নেওয়ায় টানা কর্মবিরতিতে শামিল হয়েছে ইউনাইটেড এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশন (UEA)। শনিবার সংগঠনের তরফে জানানো হল, আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কঠোর ভাবে কর্মবিরতি চালিয়ে যাওয়া হবে।

জিটিএ-র গ্রুপ ‘সি’ এবং গ্রুপ ‘ডি’ চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের নিয়মিতকরণ এবং মাপকাঠি বজায় রেখে অন্যান্য সুযোগসুবিধার দাবিতে লাগাতার আন্দোলনে নেমেছে ইউইএ। গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে চলছে অফিসে উপস্থিত হয়ে কর্মবিরতি কর্মসূচি।

এ দিন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটি একটি বৈঠকের আয়োজন করে। যেখানে মহকুমা কমিটি এবং ব্লক কমিটির সঙ্গে আন্দোলনের কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা করা হয়। প্রতিবাদ আন্দোলনের বিভিন্ন দিক এবং ভবিষ্যৎ নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা হয়।

সংগঠনের নেতৃত্ব জানান, তাদের দাবিগুলি নিয়ে এখনও পর্যন্ত জিটিএ কর্তৃপক্ষ অথবা পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের তরফে কোনো সাড়া মেলেনি।

একই সঙ্গে ইউইএ নেতৃত্ব বলেন, গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার সভাপতি বিনয় তামাং কলকাতা সফরকালে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে তাঁদের দাবিদাওয়াগুলি উত্থাপন করবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।

তবে এখনও পর্যন্ত কোনো মহল থেকেই কোনো রকমের সদর্থক ইঙ্গিত না মেলায়, সংগঠন কর্মবিরতির মেয়াদ বাড়িয়ে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

প্রসঙ্গত, সংগঠনের অভিযোগ, নতুন প্রশাসন গঠিত হলেও জিটিএ-র নির্দিষ্ট শ্রেণির কর্মীরা পড়ে রয়েছেন অন্ধকারেই। ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে কর্মরত থাকলেও নির্দিষ্ট শ্রেণির কর্মীরা বঞ্চিত প্রাপ্য সুযোগ থেকে। একাধিক বার রাজ্য সরকারের তরফে এ বিষয়ে অনুমোদন মেলার পরেও উদাসীন জিটিএ কর্তৃপক্ষ। বিস্তারিত পড়ুন এখানে: জিটিএর-র চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের নিয়মিতকরণ-সহ একাধিক দাবিতে লাগাতার আন্দোলেন কর্মী সংগঠন

Continue Reading
Advertisement
রাজ্য50 mins ago

জাতীয় গড়ের তুলনায় রাজ্যে সুস্থতার হার অনেকটাই বেশি, কেন্দ্রের প্রশংসা

দেশ2 hours ago

কোভিড-১৯: বুধবারের পর থেকে দেশব্যাপী নমুনা পরীক্ষায় ক্রমশ অবনমন

chennai superkings
ক্রিকেট10 hours ago

বদলে যাওয়া আইপিএলের শুরুতেই ‘বদলা’, জয়যাত্রা শুরু ধোনিবাহিনীর

দেশ11 hours ago

পেঁয়াজবোঝাই ট্রাক ঢুকছে বাংলাদেশে, অর্ধেক নষ্ট হওয়ার আশঙ্কায় ব্যবসায়ীরা

partha chatterjee
কলকাতা12 hours ago

ঐতিহ্যবাহী প্রতিভা গ্রন্থাগারের দ্রুত সংস্কারের প্রতিশ্রুতি দিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়

BSF-BGB Meet
দেশ12 hours ago

চার দিনের সম্মেলনে ১৪টি সিদ্ধান্ত, সীমান্ত-হত্যা শূন্যে নামাতে একমত বিজিবি-বিএসএফ

Covid situation kolkata
রাজ্য13 hours ago

সংক্রমণের হারকে আরও কিছুটা কমিয়ে রাজ্যে কমল নতুন কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ল সুস্থতার হার

দেশ13 hours ago

আগামী সপ্তাহে পুনেতে শুরু হবে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা

দেশ23 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৯৩৩৩৭, সুস্থ ৯৫৮৮০

covid in kolkata
কলকাতা3 days ago

আগস্টের তুলনায় সেপ্টেম্বরের প্রথম ১৫ দিনে কলকাতায় কমেছে নতুন কোভিডরোগীর সংখ্যা

শিল্প-বাণিজ্য2 days ago

এসবিআই এটিএমে টাকা তোলার নিয়ম বদলে গেল! দেখে নিন ওটিপি-ভিত্তিক পদ্ধতির খুঁটিনাটি বিষয়

কলকাতা3 days ago

কোভিড রুখতে অনলাইন মাধ্যমকে হাতিয়ার করছে কলকাতার একাধিক পুজো

কলকাতা3 days ago

রবীন্দ্র সরোবরে করা যাবে না ছটপুজো, খারিজ কেএমডিএর আবেদন

বিজ্ঞান3 days ago

রাশিয়ার করোনা ভ্যাকসিনে সাত জনের মধ্যে এক জনের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া!

Wriddhiman Saha
ক্রিকেট3 days ago

হায়দরাবাদের প্রথম একাদশে কি জায়গা পাবেন ঋদ্ধিমান সাহা?

Mahalaya 2020
রাজ্য3 days ago

বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের চণ্ডীপাঠে ঘুম ভাঙল বাঙালির, কিন্তু দেবীপক্ষ আরও এক মাস পর

কেনাকাটা

কেনাকাটা18 hours ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা4 days ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা1 week ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা2 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা2 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা3 weeks ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা4 weeks ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

kitchen kitchen
কেনাকাটা1 month ago

রান্নাঘরের এই ৮টি জিনিস কাজ অনেক সহজ করে দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজকাল রান্নাঘরের প্রত্যেকটি কাজ সহজ করার জন্য অনেক উন্নত ব্যবস্থা এসে গিয়েছে। তা হলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কষ্ট...

care care
কেনাকাটা1 month ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

কেনাকাটা1 month ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

নজরে