নয়াদিল্লি: প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতা আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে চুক্তিবদ্ধ হল ভারত ও আমেরিকা। বৃহস্পতিবার দিল্লিতে আমেরিকার বিদায়ী প্রতিরক্ষা সচিব অ্যাস্টন বি কার্টার ও ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পর্রীকরের বৈঠকের পর ভারতকে তাদের ‘বৃহৎ প্রতিরক্ষা সহযোগী’-র মর্যাদা দিল আমেরিকা।

পর্রীকরের সঙ্গে এ নিয়ে সাতটি বৈঠক করলেন কার্টার, যা রেকর্ড। আমেরিকা ভারতকে কতটা গুরুত্ব দেয় তা বোঝাতে গিয়ে কার্টার এ দিন বলেন, “দুনিয়ার আর কোনো দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে তিনি সাত বার বৈঠক করেননি”। কার্টার বলেন, “আজ আমরা ভারতকে ‘বৃহৎ প্রতিরক্ষা সহযোগী’-র মর্যাদা দিলাম, আমাদের প্রতিরক্ষা-সম্পর্ক এক বিরাট পদক্ষেপ করল”।

গত ৩০ নভেম্বর একটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন মার্কিন কংগ্রেস প্রতিনিধিদের কমিটি, ভারত-মার্কিন দ্বিপাক্ষিক নিরাপত্তা ক্ষেত্রে সহযোগিতাকে আরও শক্তিশালী করার লক্ষ্যে ভারতকে বৃহৎ প্রতিরক্ষা সহযোগীর মর্যাদা দেওয়ার জন্য, কার্টার এবং সে দেশের স্বরাষ্ট্রসচিবকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করতে বলে।

দুই দেশের যৌথ স্বার্থে ভারত কতটা সাহায্য করতে পারবে এবং কতটা সামরিক কার্যকলাপ চালাতে পারবে, স্বরাষ্ট্র সচিব ও প্রতিরক্ষা সচিবকে তা খতিয়ে দেখতে বলে মার্কিন কংগ্রেসের ওই কমিটি।

এ দিন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পর্রীকর কার্টারের প্রশংসা করে বলেন, “এটা বলা মোটেই অতিরঞ্জিত হবে না, যে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে আমাদের সম্পর্ক দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের প্রধান চালিকা শক্তি”।

এর পর মার্কিন কংগ্রেসের দুই কক্ষে আনুষ্ঠানিক ভাবে পাস হবে এ দিনের চুক্তিটি। তার পর তাতে সই করবেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

এই স্বীকৃতির মধ্য দিয়ে গ্রেট ব্রিটেন, অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশগুলির সঙ্গে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে আমেরিকার ঘনিষ্ঠ বলয়ে ঢুকে পড়ল ভারত।   

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here