বেঙ্গালুরু: রবিবার রাতে বেঙ্গালুরুতে শ্লীলতাহানির আরও এক সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ্যে এল। এ দিন রাত আড়াইটে নাগাদ অটো থেকে নেমে বাড়ির গলিতে হেঁটে আসছিলেন এক মহিলা। ওই গলিতে মাত্র কয়েক মিটার দূরেই তাঁর বাড়ি। হঠাৎ উলটো দিক থেকে আসা দুই স্কুটারআরোহী তাঁর পথরোধ করে। টেনে হিঁচড়ে নিয়ে গিয়ে মহিলার শ্লীলতাহানি করে ওই দুই দুষ্কৃতী। তার পর তাঁকে ধাক্কা মেরে ফেলে স্কুটার চালিয়ে চলে যায় তারা।

রবিবার বর্ষবরণের রাতে বেঙ্গালুরুর বিখ্যাত এমজি রোডে মত্ত দুষ্কৃতীদের হাতে মহিলাদের গণশ্লীলতাহানির ঘটনায় ইতিমধ্যেই দেশ জুড়ে নিন্দার ঝড় উঠছে। ঘটনার পর কর্নাটকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জি পরমেশ্বর মন্তব্য করেন,  এমন ঘটনা তো ঘটতে পারে। এর জন্য তিনি দায়ী করেন মহিলাদের। তাঁর এই মন্তব্যের জন্য বেশ কয়েকটি মহিলা সংগঠন মন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি তোলেন। পরে তিনি বলেন, গোটা ঘটনা তিনি ভুল বুঝেছিলেন। তার মধ্যে এই নতুন সিসিটিভি ফুটেজ মহিলাদের জন্য নিরাপদ শহর বলে পরিচিত বেঙ্গালুরুকে আবার মহিলা নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে দাঁড় করিয়ে দিল।

 

বেঙ্গালুরু ফিফথ মেন রোডে বসানো সিসিটিভি ক্যামেরায় এই ফুটেজ ধরা পড়েছে। যে ব্যক্তির বাড়িতে বসানো এই ক্যামেরায় ঘটনাটি ধরা পড়েছে তিনি সংবাদমাধ্যম ও পুলিশকে তার ফুটেজ দেন। এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে অন্তত চার জনকে আটক করেছে বেঙ্গালুরু পুলিশ।

বর্ষবরণের রাতের ঘটনার তিন দিন পর ‘অবশেষে’ এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ। ‘উপযুক্ত প্রমাণ’ পাওয়ার পরই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here