কলকাতা: মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের জন্য ক্রেতাসুরক্ষা দফতরের বিশেষ চমক। এ বার রাজ্যের ৮৪০টি স্কুলে তৈরি হচ্ছে ‘ক্রেতা সুরক্ষা ক্লাব’। স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে ক্রেতাসুরক্ষা নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। বৃহস্পতিবার ক্রেতাসুরক্ষা দফতরে এক সাংবাদিক বৈঠকে এই কথা বলেন ক্রেতাসুরক্ষা মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে।

ক্রেতাসুরক্ষা মন্ত্রী বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশেই এই পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এই ক্লাব তৈরি করা জন্য দফতরের পক্ষ থেকে প্রতিটি স্কুলকে ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হচ্ছে। শুক্রবার কলকাতার ১৮০টি মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্কুলের হাতে ১০ হাজার টাকা করে চেক তুলে দেওয়া হবে। আবার ১৫ দিন পর এই স্কুলগুলিকে আরও ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।

সাধনবাবু আরও বলেন, “নানা বিষয়ে ক্রেতাদের অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তা দ্রুত সমাধান করার জন্য আমরা দফতরেই ব্যবস্থা নিচ্ছি। কিন্তু এ ব্যাপারে সাধারণ মানুষের সচেতনতা আরও বাড়ানো দরকার। সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে ইতিমধ্যেই সংবাদপত্রে ও মোবাইল ভ্যানের মাধ্যমে সচেতনতা অভিযান চলছে। কিন্তু এই সচেতনতা স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে বাড়ালে আরও বেশি কাজের কাজ হবে।” 

‘ক্রেতা সুরক্ষা ক্লাবটির’ স্কুলে কাজ কী?

স্কুলের মধ্যে একটি ঘর বরাদ্দ করবে স্কুল কর্তৃপক্ষ। সেই ঘরেই তৈরি করা হবে ক্রেতা সুরক্ষা ক্লাব। ছাত্রছাত্রীদের ক্রেতা সুরক্ষা সম্পর্কে সপ্তাহে এক দিন বিশেষ ট্রেনিং দেওয়া হবে। মূলত স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের সচেতনতা বৃদ্ধি করতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। আর ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে এ বিষয়ে সচেতনতা বাড়লে বাড়ির সদস্যদের মধ্যে সচেতনতা বাড়বে। ক্রেতাদের মধ্যে সচেতনতা যত বৃদ্ধি পাবে ততই ক্রেতা সুরক্ষা দফতরে অভিযোগের সংখ্যা কমবে। দিনে দিনে ক্রেতা সুরক্ষা দফতরে অভিযোগের পাহাড় জমছে। আর তার ফয়সালা ক্রমশই কঠিন হয়ে পড়ছে।

ছবি : সৌজন্যে ব্রেনফিডম্যাগাজিন ডট কম

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here