BJP Arms
বুধবারের ছবি।

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, মথুরাপুর: গত বুধবার বিজেপির ডাকা বাংলা বন্‌ধের দিন অস্ত্র আইনে গ্রেফতার করা রাধানাথ হালদারকে বৃহস্পতিবার আদালতে তোলা হয়। এ দিন তাঁর পাঁচ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিল ডায়মন্ড হারবার আদালত।

প্রশাসন সূত্রে জানা যায় গত বুধবার গোপন সূত্রে খবর পেয়ে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার মথরাপুর-১ ব্লকের দেবীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের উত্তর দুর্গাপুর তালবাড়িয়া থেকে ২ রাউন্ড গুলি একটি ওয়ান শাটার পাইপগান-সহ রাধানাথ হালদারকে গ্রেফতার করা হয়। বাড়ি মথুরাপুর থানার উত্তর দুর্গাপুর তালবাড়িয়া এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাধানাথ হালদার বিজেপি সমর্থক। পুলিশি জেরায় রাধানাথ হালদার রাজু হালদার নামে আর এক জনের নাম বলেন। যে কারণে পুলিশ তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসে। তখনই পুলিশের সঙ্গে বিবাদ বাঁধে বিজেপি সমর্থকদের।

বিজেপি নেতা-কর্মীরা মথরাপুর থানায় এসে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। তাঁদের দাবি, রাজু হালদার পিতা কৃপা সিন্ধু হালদারকে মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসানো হয়েছে। কিন্তু স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে জানা যায় রাধানাথ হালদার নামের ওই ব্যক্তিকে জেরা করেই রাজু হালদারের নাম জানা যায়। রাধানাথ পুলিশকে জানায়, রাজু তাঁদের সঙ্গে আছেন। এর পরই পুলিশ রাজুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে কিন্তু বিজেপি সমর্থকরা তা মানতে নারাজ।


আরও পড়ুন: বিনা টিকিটের রেলযাত্রীদের কাছ থেকে ৯০ লক্ষ টাকার জরিমানা আদায় করেছে আদ্রা ডিভিশন

মন্দিরবাজার বিজেপির ব্লক সভাপতি দিলীপ জাতুয়ার ও তালবাড়িয়া গ্রামের বিজেপির পঞ্চায়েত সদস্য মৌমিতা অধিকারীর নেতৃত্বে শতাধিক বিজেপি কর্মী থানার সামনে অবস্থান-বিক্ষোভ শুরু করেন ।  খবর দেওয়া হয় ডিএসপি মন্দিরের বাজারকে। রাত আটটার সময় ডিএসপি মন্দিরবাজার মথুরাপুর থানায় আসেন। এবং রাতে রাজুকে ছেড়ে দেওয়া হয়। কিন্তু রাধানাথ হালদারকে অস্ত্র আইনে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার ডায়মন্ড হারবার আদালতে তোলা হয়।

জানা গিয়েছে, তদন্তের স্বার্থে পুলিশ রাধানাথের ১০ দিনের জন্য পুলিশি হেফাজতের আবেদন করে। আদালত পাঁচ দিনের জন্য তা মঞ্জুর করে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন