Nandigram water treatment plant
প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি

ওয়েবডেস্ক: পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রাম সংলগ্ন প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ মানুষের পরিস্রুত পানীয় জল সরবরাহে গড়ে উঠছে নতুন একটি জলপ্রকল্প। আনুমানিক ৭০০ কোটি ব্যয়ে প্রস্তাবিত এই জলপ্রকল্প থেকে উপকৃত হবেন নন্দীগ্রাম এক ও দুই নম্বর ব্লক, চণ্ডীপুর ও নন্দকুমার ব্লকের এই বিশাল সংখ্যক মানুষ।

জানা গিয়েছে, রাজ্য সরকারের উদ্যোগে গড়ে ওঠা এই জলপ্রকল্পে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্ক দেবে মোট ব্যয়ের ৭০ শতাংশ, বাকি ৩০ শতাংশ রাজ্যের। প্রকল্পের প্রাথমিক রূপরেখা সম্পূর্ণ হয়েছে। নবান্ন সূত্রে খবর, প্রথমে জমি নিয়ে সমস্যা থাকলেও পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর উদ্যোগে জটিলতা কেটে গিয়েছে। প্রকল্পের প্রয়োজনীয় ২ একর জমিও মিলেছে। কয়েক দিনের সপ্তাহের প্রতিদিন ১৩২ মিলিয়ন লিটার পরিস্রুত জল তৈরির এই প্রকল্পের টেন্ডার ডাকা হবে।

বর্তমানে এই এলাকাগুলিতে সাধারণ মানুষকে পানীয় জলের জন্য নির্ভর করতে হয় ভূগর্ভস্থ জলের উপরেই। ফলে গ্রীষ্মকালে ভুগতে হয় চরম জল সংকটে। তবে প্রকল্পটির বাস্তব রূপায়ন হয়ে গেলে সেই সমস্যা মিটবে। সে ক্ষেত্রে অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে সমুদ্রের নোনা জল থেকে লবণ পৃথক করে পানের যোগ্য করে তোলা হবে। পরিশোধনের প্রক্রিয়াটি হবে যান্ত্রিক পদ্ধতিতে। তমলুকের কাছে একটি রূপনারায়ণ নদে একটি যন্ত্র বসিয়ে জল টেনে নিয়ে যাওয়া হবে পরিশোধনাগারে। সেখানে পানীয় জল তৈরির পর সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলিতে সরবরাহ করা হবে।

নবান্ন সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, আগামী দুর্গাপুজোর পরেই প্রকল্পটির টেন্ডার ডাকা হবে। সব কিছু ঠিকঠাক চললে ২০১৯-এর জানুয়ারিতেই ওই জলপ্রকল্প নির্মাণের কাজ শুরু হয়ে যাবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন