Medical
খোলা আকাশের নীচে বসে রোগীরা। ছবি: রাজীব বসু

কলকাতা: কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে বুধবারের সকালে আগুন লাগে জরুরি বিভাগের উলটো দিকে একটি ওষুধের স্টোরে। যার জেরে পুড়ে নষ্ট হয়ে যায় প্রায় ৮০ শতাংশ ওষুধ। মেডিক্যাল কর্তৃপক্ষের মতে ওই ওষুধের মূল্য আনুমানিক ৫ কোটি টাকা। তবে আগুনের গ্রাস থেকে যে ওষুধগুলিকে বাঁচানো সম্ভব হয়েছে, সেগুলিও ব্যবহারের উপযোগী নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

আগুন নিয়ন্ত্রণে সময় লাগে প্রায় ৪ ঘণ্টা। চিকিৎসকদের মতে, ততক্ষণে যা হওয়ার তা হয়ে গিয়েছে। ওই স্টোরে এক মাসের ওষুধ মজুত ছিল। ফলে সাময়িক ভাবে ওষুধের চাহিদা পূরণ কী ভাবে করা যাবে সে বিষয়ে বৈঠক করা হচ্ছে। একই সঙ্গে জানা গিয়েছে, নিত্যদিনের ব্যবহৃত ওষুধের পাশাপাশি একটা বিশাল পরিমাণ চিকিৎসা সরঞ্জামও নষ্ট হয়ে গিয়েছে।

এ ব্যাপারে রাজ্য সরকারের তরফে প্রয়োজনীয় ওষুধ যত শীঘ্র সম্ভব বন্দোবস্তের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে। তবে অন্য হাসপাতাল থেকে ওষুধ নিয়ে এসে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছেন কর্তৃপক্ষ। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত রোগীদের বিনামূল্যে ওষুধ দেওয়া বন্ধ থাকবে বলেও জানানো হয়েছে।

মেডিক্যালে অগ্নিকাণ্ডের জেরে হুড়োহুড়িতে রোগী মৃত্যুর অভিযোগ

এ দিকে মেডিক্যাল কলেজ সূত্রে খবর, অগ্নিকাণ্ডের জেরে আগামী বৃহস্পতিবার বন্ধ থাকবে হেমাটোলজি ও মেডিসিন বিভাগে রোগী ভর্তি। তবে বহি:বিভাগ এবং জরুরি বিভাগ যথারীতি খোলা থাকবে।

নিয়ন্ত্রণে মেডিক্যালের আগুন, নষ্ট প্রচুর জীবনদায়ী ওষুধ

উল্লেখ্য, আগুন লাগার কারণ জানতে ৫ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। অন্য দিকে পূর্ত ও দমকল বিভাগও পৃথক ভাবে তদন্ত করছে, নিছক দুর্ঘটনা না কি এর নেপথ্যে কোনো অন্তর্ঘাত রয়েছে, তা খতিয়ে দেখতে বিশেষ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নবান্নের তরফে। ৫ সদস্যের কমিটি আগামী ৫ দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট নবান্নে জমা করবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন