Shankar-Chakraborty-BJP-Leader

ওয়েবডেস্ক: মঙ্গলবার রায়গঞ্জ জেলা আদালতে তোলা হয় বিজেপির উত্তর দিনাজপুর জেলা সভাপতি শংকর চক্রবর্তীকে। পুলিশের বিরুদ্ধে প্ররোচনামূলক মন্তব্য মামলায় বিচারক তাঁকে ৫ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে শর্তসাপেক্ষ জামিন দেন। কিন্তু অন্য একটি মামলার জেরে তাঁর জামিন মঞ্জুর না করে বিচারক তাঁকে আগামী ৯ অক্টোবর আদালতে পেশ করার নির্দেশ দেন।

গত রবিবার ইসলামপুরের একটি দলীয় সভায় শংকরবাবু পুলিশের বিরু্দ্ধে প্ররোচনামূলক বক্তব্য পেশ করেন। তিনি গ্রামবাসীদের উদ্দেশে নিদান দেন, “পুলিশকে সহযোগিতা করার কোনো প্রশ্নই নেই। তিনি গ্রামবাসীদের উদ্দেশে নিদান দেন, গ্রামে যেন পুলিশ ঢুকতে না পারে। আবার ঢুকলেও যেন বেরোতে না পারে। পুলিশ গ্রামে ঢুকলেই গাছে বেঁধে পেটান। তদন্তের নামে পুলিশ নিরাপরাধ গ্রামবাসীদের গ্রেফতার করছে”। পাশাপাশি তিনি বলেন, “কুকুরকে জল দেবেন কিন্তু পুলিশকে দেবেন না। পুলিশের ছেলে-মেয়েরা যদি কোনো পথদুর্ঘটনায় আহত হয় তা হলে তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাবেন না। কুকুর-ছাগলকে নিয়ে যাবেন”।

এই মামলায় এসিজেএম মহুয়া বসুরায় এ দিন শংকরবাবুর জামিন মঞ্জুর করেন। তবে ৫ হাজার বিনিময়ে তাঁর শর্তসাপেক্ষ জামিন মঞ্জুর হলেও অন্য একটি মামলায় তিনি আটকে রইলেন।


আরও পড়ুন: আগামী বুধবার ছুটি ঘোষণাকারী স্কুলগুলিকে চরম বার্তা শিক্ষামন্ত্রীর

জানা গিয়েছে, ইসলামপুরের দাঁড়িভিট হাইস্কুলের দুই প্রাক্তন ছাত্রের মৃত্যুর পর দিন বিজেপি যে জেলা বন্‌ধ ডেকেছিল সেখানে সরকারি সম্পত্তি নষ্টের অন্য একটি মামলায় অভিযুক্ত শংকরবাবু। একই দিনে উত্তর দিনাজপুর সিজিএম আদালতে বিচারপতি সুরেশ সিংয়ের এজলাসে ওঠে ওই মামলা। সেখানে বিচারক নির্দেশ দেন, আগামী ৯ অক্টোবর তাঁকে ফের আদালতে পেশ করতে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন