cyclone
প্রতীকী ছবি

কলকাতা: মহালয়ার পরিষ্কার আকাশ দেখে কোনো আন্দাজই করতে পারবেন না, আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে কী আমূল পরিবর্তন হয়ে যেতে পারে আবহাওয়ার। কিছু বিদেশি সংস্থা এবং বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থার আগেই জানিয়েছিল, এ বার কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরও জানিয়ে দিল বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে।

সোমবার দুপুরে আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি নিম্নচাপটি গভীর নিম্নচাপে ঘনীভূত হয়েছে। ধীরে ধীরে সেটি আরও শক্তি বাড়িয়ে ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নেবে। তবে আগামী ৭২ ঘণ্টায় ওড়িশার দিকে এগোনো ছাড়া এই ঘূর্ণিঝড়ের ভবিষ্যৎ গতিপ্রকৃতির ব্যাপারে কিছু জানায়নি আবহাওয়া দফতর। তবে বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা মনে করছে, ওড়িশা এবং দক্ষিণ পশ্চিম বাংলাদেশ উপকূলের মধ্যে দিয়ে এটি আঘাত হানার সম্ভাবনা। বেশ কিছু বিদেশ সংস্থা বলছে, ঘূর্ণিঝড়টি পশ্চিমবঙ্গ উপকূলের কান ঘেঁষে আঘাত হানবে বাংলাদেশে।

আরও পড়ুন কমছে ভূগর্ভস্থ জল, আইন আনার পথে রাজ্য সরকার

নিম্নচাপটি যদি সত্যিই ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়, তবে তার নাম হবে তিতলি। নামটি পাকিস্তানের দেওয়া।

এর প্রভাবে কেমন আবহাওয়া থাকবে রাজ্যে?

আলিপুর আবহাওয়া দফতর আপাতত শুধু ভারী বৃষ্টির সতর্কতা দিয়েছে দক্ষিণবঙ্গের জন্য। কিন্তু ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা বলেন, “বুধবার থেকে পরিবর্তন হবে আবহাওয়ার। বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার পর্যন্ত কলকাতায় ঝোড়ো হাওয়া এবং দফায় দফায় মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।” তবে উপকূলবর্তী অঞ্চলে ঝড়ের দাপট অনেকটাই বেশি থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি। অতি ভারী বৃষ্টিরও সম্ভাবনা রয়েছে।

এই মুহূর্তে শহর ছেয়ে গিয়েছে পুজোর হোর্ডিং-এ। এই হোর্ডিংগুলোর দিকে বেশি করে নজর দেওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছেন রবীন্দ্রবাবু। তাঁর কথায়, হাওয়ার দাপট বেশি হলে সেগুলি পড়ে যেতে পারে। পাশাপাশি মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ার ওপরেও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার কথা বলা হয়েছে।

পুজোর মধ্যে আবহাওয়া কেমন থাকবে?

দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার রেশ কেটে গেলেই দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়া ক্রমশ উন্নতি করতে শুরু করবে বলে জানিয়েছেন রবীন্দ্রবাবু। পঞ্চমী থেকে আবহাওয়ার উন্নতি হবে। পুজোর দিনগুলোয় দুপুরের দিকে বিক্ষিপ্ত ভাবে হালকা বৃষ্টি হলেও, আবহাওয়া মোটের ওপরে পরিষ্কার থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তবে পাশাপাশি এটাও জানাতে তিনি ভোলেননি, যে এ বছর আবহাওয়া খামখেয়ালিপনা অনেকটাই বেশি, তাই শেষ মুহূর্তে কিছুটা মতিগতি পালটে ফেলতে পারে এই নিম্নচাপ। তবে আপাতত যা পরিস্থিতি, বুধবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত প্রবল বৃষ্টি হবে দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন