indian currency

কলকাতা: বৃহস্পতিবার স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল বা স্যাট-এ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা (ডিএ) মামলার শুনানি অসম্পূর্ণই রয়ে গেল। স্যাটের বেঁধে দেওয়া সময়সীমার মধ্যে রাজ্য সরকারের তরফে কোনো হলফনামা জমা না পড়ায় এ দিন সময় বাড়ানোর আর্জি খারিজ করে দিল স্যাট।

গত ৩১ আগস্ট কলকাতা হাইকোর্টের রায়ে ডিএ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের প্রাপ্য আইনি অধিকার হিসাবে গণ্য করা হয়েছে। ঐতিহাসিক ওই রায়ের পর রাজ্য সরকারকে কোনো রকমের নির্দেশ না দিয়ে মামলাটির নিষ্পত্তির দায়িত্ব দেওয়া হয় স্যাট-কে। গত ১২ সেপ্টেম্বর স্যাটের তরফে রাজ্য সরকারকে এ বিষয়ে হলফনামা জমা করতে বলা হয়েছে। সময় বেঁধে দিয়ে স্যাট বলে আগামী ২৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সেই হলফনামা জমা করতে হবে। কিন্তু নির্ধারিত সময় পার হয়ে যাওয়ার পরেই রাজ্যের তরফে জমা করা হয়নি কোনো হলফনামা।

বৃহস্পতিবার স্যাটে ওঠে ডিএ মামলার শুনানি। সেখানে সময় মতো রাজ্যের হলফনামা জমা না পড়ার বিষয়টি নিয়ে চলে বাদানুবাদ। জানা গিয়েছে, কর্মচারীদের ডিএ কাঠামো নির্ধারণের ফাইল হারিয়ে ফেলেছে রাজ্য সরকার। যে কারণে তারা সময় মতো হলফনামা জমা করতে পারেনি। রাজ্যকে পুনরায় হলফনামা জমা করার সুযোগ থেকে বঞ্চিত করে বিচারপতি আর কে বাগ এবং সুবেশ দাসের বেঞ্চ। জানানো হয়, আগামী ১৪ নভেম্বর ফের ওই মামলার শুনানি হবে।


আরও পড়ুন: ডিএ মামলায় রাজ্য সরকারকে হলফনামা জমা করার নির্দেশ দিল স্যাট


মামলাকারী সংগঠন কনফেডারেশনের প্রতিনিধিদের আশা, আগামী নভেম্বর মাসেই স্যাট এই মামলার রায় দিতে পারে। কারণ, কলকাতা হাইকোর্টের বেঁধে দেওয়া ২ মাসের সময়সীমার মধ্যেই এ ব্যাপারে স্যাটের সিদ্ধান্ত ঘোষণা জরুরি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন