কলকাতা : যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের হোস্টেল সুপারের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের এক দলিত ছাত্র। নাম চন্দন মণ্ডল। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসন্তী ব্লকের বাসিন্দা। শারীরবিদ্যার ছাত্র চন্দন। তাঁর অভিযোগ, বেশ কিছু দিন ধরে তাঁর প্রতি বিরূপ আচরণ করছেন সুপার বিষ্ণুশঙ্কর পঞ্চাধ্যায়। কিন্তু উপাচার্য সুরঞ্জন দাসের কাছে সুপারের বিরুদ্ধে একাধিকবার অভিযোগ জানিয়েও কোনো কাজ হয়নি। তাই থানায় অভিযোগ জানান তিনি। তফসিলি জাতি ও উপজাতি আইনে এই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। 

চন্দনের দাবি, ৮ মার্চ উপাচার্যের কাছে অভিযোগ জানান। তার পর বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য একটা তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়। ৯ তারিখে তাঁকে ডেকে পাঠানো হয়। কিন্তু  ১০ তারিখ ওই কমিটি তদন্ত করা বন্ধ করে দেয়। কিন্তু সে ব্যাপারে উপাচার্যকে জানানোর চেষ্টা করা হলে তিনি দেখা করেননি। 

ওই ছাত্রের অভিযোগ, দলিত হওয়ার জন্যই তাঁর ওপর মানসিক নির্যাতন করতেন সুপার। আর্থিক সমস্যার জন্য হোস্টেলে তিন মাসে ছ’ হাজার টাকা বাকি পড়েছে। তিনি টাকা শোধ করে দেবেন বললেও, সুপার হুমকি দিয়েছেন টাকা দ্রুত শোধ না করলে প্রতি হাজার টাকায় ৫০০ টাকা করে জরিমানা দিতে হবে। এই ভাবে নানা রকম মানসিক চাপ সৃষ্টি করার দরুণ তিনি ক্রমশ অসুস্থ হয়ে পড়ছেন।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন