Lalmohan Mahato
নিজস্ব চিত্র

শুভদীপ চৌধুরী, পুরুলিয়া: জেলার টুলুহুড়ু গ্রামে খুন হওয়া লালমোহন মাহাতোর স্ত্রী-সহ গোটা পরিবার যোগ দিলেন তৃণমূলে। লালমোহনের খুনের পরই বিজেপি দাবি করেছিল, মৃত তাদের দলীয় কর্মী। অন্য দিকে সরকারি সূত্রের দাবি, গ্রাম্য বিবাদের জেরেই খুন হয়েছেন লালমোহন।

গত শুক্রবার পুরুলিয়া সফরে এসেই সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় একহাত নেন বিজেপিকে । সে দিন তিনি বলেন, “বিজেপি পার্টিকে ভোট দেওয়া আর খাল কেটে কুমির ডাকা একই ব্যাপার, যেখানে তৃণমূল কংগ্রেস জিতেছে সেখানে শান্তি বিরাজ করেছে আর যেখানে বিজেপি জিতেছে সেখানে দাঙ্গা হয়েছে । বিজেপির মতো অপয়া দল ভারতবর্ষের মাটিতে দ্বিতীয় আর খুঁজে পাওয়া যাবে না । এরা মৃত্যুকে নিয়ে যেভাবে রাজনীতি করে তাতে মনে হয় এদের সঙ্গে শকুনের কোনও পার্থক্য নেই ।” এ রকমই কড়া ভাষায় বিজেপিকে তোপ দাগেন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: গ্রাম্য বিবাদের জেরে খুন পুরুলিয়ায়, বিজেপির দাবি দলীয় কর্মী

অভিষেকের জনসভা শেষ হওয়ার ঠিক পরের দিন, শনিবার মৃত লালমোহন মাহাতোর স্ত্রী রানি মাহাতো, ছেলে সমীর, নৃপেন-সহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও এসে তৃণমূলের পতাকা হাতে ধরে যোগদান করেন তৃণমূলে ।

lalmohan mahata
মৃত লালমোহন মাহাত। ফাইলচিত্র

প্রসঙ্গত, কয়েকমাস আগে পুরুলিয়ার টুরুহুলু গ্রামে এক জমি বিবাদের জেরে খুন হন বিজেপি প্রার্থী লালমোহন মাহাতো । এর পর শনিবার ওই পরিবারের সকলেই যোগদান করেন তৃণমূলে । এ দিন মৃত লালমোহনের স্ত্রী ও পরিবারের প্রত্যেকেই বলেন, তাঁরা স্বেচ্ছায় তৃণমূলে যোগদান করেন । মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের জোয়ারে তাঁরাও থাকতে চান বলে দাবি করেন মৃতের পরিবারের সদস্যরা ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন