Dilip Ghosh
মৃণাল চক্রবর্তী (বাঁ দিকে) এবং দিলীপ ঘোষ

ওয়েবডেস্ক: পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে গত গত ২৮ আগস্ট রাত থেকে চরম সংঘর্ষ বাঁধে উত্তর ২৪ পরগনার আমডাঙায়। ব্যাপক বোমা-গুলির সংঘর্ষে প্রাণ যায় ৪ জনের। সম্প্রতি ওই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত জাকির ভল্লুককে গ্রেফতার করার পর চাপা উত্তেজনা গোটা এলাকা জুড়ে। এরই মধ্যে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ গত বুধবার দাবি করেন, তাঁর দলই আমডাঙায় বোর্ড গঠন করবে। এ ক্ষেত্রে তাঁদের সহযোগিতা করবে সিপিএম। অবশ্য দিলীপবাবুর এমন মন্তব্যকে ধর্তব্যের মধ্যে নিয়ে আসতে চাইছে না সিপিএম।

ঠিক কী হিসাবে বিজেপি রাজ্য সভাপতি এমন মন্তব্য করেছেন সে বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানা যায়নি। তবে তিনি বলেছেন, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে জয়ী আমডাঙার সিপিএম প্রার্থীরা বিজেপির কাছেই আছেন। যথা সময়ে তাঁদের বের করে বিজেপি বোর্ড গঠন করবে।

একই সঙ্গে তিনি দাবি করেন, বোর্ড গঠন করার মতো দম সিপিএমের নেই। বিজেপিই বোর্ড গঠন করবে। জাকিরকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। বাকিরা সব তাঁর হেপাজতেই আছেন। তবে প্রধান যে সিপিএমের থেকেই বেছে নেওয়া হবে, সে কথা জানাতেও ভোলেননি তিনি।

দিলীপবাবুর এহেন মন্তব্যে যথেষ্ট উৎসাহিত তৃণমূল কংগ্রেসও। রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক প্রথম থেকেই দাবি করে এসেছেন বেশ কিছু জায়গায় সিপিএমের সঙ্গে বিজেপির গোপন আঁতাঁত রয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই দিলীপবাবুর সিপিএম প্রার্থীদের সঙ্গে নিয়ে বোর্ড গঠনের মন্তব্যে তিনি দাবি করেছেন, এই স্বীকারোক্তিতে পুরো বিষয়টা জলের মতো পরিষ্কার হয়ে গেল। অন্য দিকে দিলীপবাবু আবার বলেছেন, “জাকির জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের বাড়িতেই ছিল”।


আরও পড়ুন: দফতর-পর্ষদ টানাপোড়েনে বাতিল হল করম পরবের নির্ধারিত অনুষ্ঠান

তবে দিলীপবাবুর মন্তব্যে কোনো সারবত্তা আছে বলে মনে করে না সিপিএম। উত্তর ২৪ পরগনা জেলা সিপিএম সম্পাদক মৃণাল চক্রবর্তী বলেন, “দিলীপবাবু ফাঁকা আওয়াজ দিচ্ছেন। এটা ওনার ভিত্তিহীন দাবি”।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন