assaulted dr. srinivas
নিগৃহীত ডাক্তার। নিজস্ব চিত্র।

কলকাতা: হাসপাতালের মধ্যেই চিকিৎসককে নিগ্রহ করার অভিযোগ উঠল থানার বড়োবাবুর বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় কলকাতার পুলিশ কমিশনার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কোনো ব্যবস্থা না নিলে ওয়েস্ট বেঙ্গল ডক্টর্স ফোরাম গুরুতর পদক্ষেপ করবে বলে জানিয়ে দিয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার ওই হাসপাতালে জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে। ঘটনাটি নিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আলিপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

বাড়িতে পড়ে গিয়ে চোট পেয়ে সিএমআরআই-এ ভর্তি হন যাদবপুর থানার ওসি পুলক দত্ত। পুলকবাবু চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগে চিকিৎসক শ্রীনিবাসকে সপাটে চড় মারেন বলে অভিযোগ। তাতে আহতও হন ওই চিকিৎসক। এই ঘটনার প্রতিবাদে হাসপাতালের ডাক্তাররা বুধবার বিকেলে কিছুক্ষণের জন্য কাজ বন্ধ করে দেন।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার বাড়ির শৌচালয়ে পড়ে যান পুলক দত্ত। চোট লাগে হাতে। রাতে সিএমআরআই হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। বুধবার বিকেলে পুলকবাবুর মনে হয়, তাঁর চিকিৎসা ঠিকমতো হচ্ছে না। কর্তব্যরত চিকিৎসক শ্রীনিবাসের সঙ্গে তাঁর কথা কাটাকাটি হয়। এর পরই তিনি চিকিৎসককে চড় মারেন বলে অভিযোগ। পুলকবাবু অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। উলটে তাঁর দাবি, তাঁর সঙ্গে ওই চিকিৎসকই দুর্ব্যবহার করেছিলেন।

ইদানীং কলকাতা পুলিশের ফেসবুক পেজে ‘চিকিৎসকরা সমাজবন্ধু’ বলে জোর প্রচার চলছে। এ নিয়ে একটি ভিডিও-ও আপলোড করা হয়েছে। পুলিশের এই উদ্যোগকে বাহবা জানাচ্ছেন মহানগরের নাগরিকরা। ঠিক এই সময়েই কলকাতা পুলিশের এক ওসির বিরুদ্ধে ডাক্তারকে নিগ্রহ করার অভিযোগ উঠল। ঘটনায় চিকিৎসকমহল খুবই ক্ষুব্ধ।

কলকাতার পুলিশ কমিশনার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কোনো ব্যবস্থা না নিলে ওয়েস্ট বেঙ্গল ডক্টর্স ফোরাম গুরুতর পদক্ষেপ করবে বলে জানিয়ে দিয়েছে। ফোরামের সভাপতি এক বিবৃতিতে বলেছেন, পুলিশের এক দারোগার হাতে আজ সহিংসতার শিকার হয়েছেন এক চিকিৎসক। এই সেই পুলিশ যারা কিছু দিন আগে ভিডিও বানিয়ে ‘সমাজবন্ধু’ চিকিৎসকের জয়গান গাইছিল।
পুলিশমন্ত্রী ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী এই ঘটনায় কী ব্যবস্থা নেন সেটাই দেখতে চায় ডক্টর্স ফোরাম। ফোরাম স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে কোনো আশ্বাস নয়, অভিযুক্ত দারোগাকে অবিলম্বে গ্রেফতার করা না হলে বৃহত্তর আন্দোলন হবে। আক্রান্ত, রক্তাক্ত চিকিৎসকরা ধর্মঘট করলেও তাঁদের দোষ দেওয়া যাবে না। আর তার জন্য দায়ী থাকবে সরকার।

ফোরামের দাবি, অবিলম্বে পুলিশমন্ত্রী ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঘটনার প্রকাশ্য নিন্দা করে ওই দারোগাকে গ্রেফতার করার ব্যবস্থা করুন। তা না হলে আগামী রবিবার ফোরাম পরবর্তী পদক্ষেপ ঘোষণা করবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন